রাজশাহীতে সাংবাদিকদের জন্য ডিজিটাল ও শারীরিক সুরক্ষায় প্রশিক্ষণ

প্রকাশিত: মে ৮, ২০১৯; সময়: ১:৩৪ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : পেশাগত ক্ষেত্রে ডিজিটাল ও শারীরিক সুরক্ষা বিষয়ে সাংবাদিকদের দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ এনজিও’স নেটওয়ার্ক ফর রেডিও এন্ড কমিউনিকেশনের (বিএনএনআরসি) এর উদ্যোগে ও ইন্টারনিউজের সহায়তায় বুধবার রাজশাহীর একটি হোটেলে দিনব্যাপী এক প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

কর্মশালায় বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ গণমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিকদের পেশাগত দায়িত্ব পালনে নিরাপদে তথ্য ও প্রযুক্তির ব্যবহার সম্পর্কে সম্যক ধারণা প্রদান করা। পাশাপাশি ডিজিটাল হুমকি ও ঝুঁকি হ্রাসের কৌশল অনুশীলন করার মাধ্যমে ডিজিটাল ও শারীরিক সুরক্ষার সুনিশ্চিত করার ব্যাপারে সাংবাদিকদের সচেতন করা হয়।

প্রশিক্ষণে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকসহ স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায়ের দৈনিক পত্রিকা, অনলাইন নিউজ পোর্টাল, টেলিভিশন চ্যানেল এবং কমিউনিটি রেডিও’র মোট ১২ জন সাংবাদিক অংশগ্রহণ করেন।

ডিজিটালাইজেশন-এর যুগে খাপ খাইয়ে শারীরিক ও পেশাগত সুরক্ষার সাথে সাথে আধুনিক মানসম্মত সাংবাদিকতা এখন যুগের চাহিদা। তবে গণমাধ্যমকর্মীদের জন্য ডিজিটাল ও শারীরিক সুরক্ষা এবং নিরাপত্তা বিষয়ক পেশাদারী প্রশিক্ষণ ও নতুন নতুন প্রযুক্তিতে তাদের অভিগম্যতার অভাব একদিকে যেমন একটি পেশাদার ও স্থায়িত্বশীল গণমাধ্যমের ক্ষেত্র প্রস্তুত করা অসম্ভব করে তুলেছে অন্যদিকে তেমনি সাংবাদিকদের ঠেলে দিচ্ছে ঝুঁকির মুখে। এক্ষেত্রে নারী সাংবাদিকরা আরো পিছিয়ে আছেন। এমাতাবস্থায়, বিএনএনআরসি এবং ইন্টারনিউজ রাজশাহীতে কর্মরত স্থানীয় ও জাতীয় দৈনিক পত্রিকা এবং ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকদের পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য উক্ত প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়।

প্রশিক্ষণটি পরিচালনা করেন বেসরকারি টিভি চ্যানেল বাংলাভিশন-এর সিনিয়র নিউজ এডিটর আবু রুশ্দ রুহুল আমীন এবং জাতীয় ইংরেজি দৈনিক ঢাকা ট্রিবিউনের সিনিয়র রিপোর্টার কামরুল হাসান।

প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণকারীদের মোবাইল ও কম্পিউটার সংক্রান্ত সুরক্ষা, মোবাইলে তথ্য উপাত্ত নিরাপদে সংরক্ষণ ও শক্তিশালী পাসওয়ার্ড তৈরীর উপায় সম্পর্কে ধারণা দেওয়া হয়। এছাড়া ফেসবুক একাউন্ট, ফোন কল, মেসেজ ও সোর্স বা উৎসকে সুরক্ষিত করার কৌশল শেখানো হয়। ডাটা চুরি হওয়া, মোবাইল ফোনে আড়ি পাতা এবং অ্যাপস ব্যবহারের ঝুঁকি ইত্যাদি সম্পর্কে হাতে কলমে ধারণা প্রদান করা হয়। পাশাপাশি ‘ইনক্রিপশন’ এর দুর্বলতা ও সমাধান, ডিজিটাল নিরাপত্তার হুমকিগুলো এবং এগুলো মোকাবেলা করার উপায় ও ব্যক্তিগত নিরাপত্তার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়।

এছাড়াও প্রশিক্ষকরা অংশগ্রহণকারীদের ডিজিটাল সুরক্ষা নিশ্চিত করার উপায় সংক্রান্ত নানা প্রশ্নের উত্তর দেন। এই কর্মশালা থেকে সাংবাদিকরা তাদের পেশাগত কাজ ও তথ্যের মূল্য অনুধাবন করতে সক্ষম হবেন। পাশাপাশি কর্মক্ষেত্রে তাদেরকে ঝুঁকিতে ফেলতে পারে এমন কিছু ব্যক্তিগত অভ্যাস পরিবর্তনে সচেষ্ট হবেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে