বাঘায় আড়াই বছর আগে চুরি যাওয়া সিঁন্ধুকসহ ৬ গরু উদ্ধার

প্রকাশিত: মে ৫, ২০১৯; সময়: ৫:১১ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঘা : রাজশাহীর বাঘায় আড়াই বছর আগে চুরি যাওয়া ১টি সিঁদ্ধুকসহ ৬ টি চোরাই গরু ও ১টি ছাগল উদ্ধার করা হয়েছে। রোববার  উপজেলার রুস্তমপুর ভারতি পাড়া গ্রামের জমির ফকিরের ছেলে মমিন ফকিরের বাড়ি থেকে এসব চুরি যাওয়া গরু-ছাগল ও সিঁদ্ধুক উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানান, আগের দিন শনিবার রাতে পাশের গ্রাম রামচন্দ্রপুর ফুলতলা এলাকার রাকিব হোসেন বাচ্চুর দুইটি গরু চুরি হয়। রোববার সকালে গরুর মালিক ও তার লোকজন গরুর পায়ের চিহৃ ধরে রুস্তমপুর ভারতি পাড়া গ্রামে জমির ফকিরের ছেলে মমিন ফকিরের বাড়িতে চলে আসে। সেখানে বাচ্চুর চুরি যাওয়া গরু ২টি দেখতে পায়। পরে পুলিশ নিয়ে মমিন ফকিরের বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এসময় মমিন ফকির বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। তার বাড়ি থেকে চুরি যাওয়া ৬ টি গরু , ১ টি ছাগল ও ১ টি সিঁন্ধুক উদ্ধার করা হয়। এর মধ্যে রাকিবুল হাসান বাচ্চুর ২টা,চকসিংগা এলাকার রাশিদুল হাসানের ১টি, আড়ানি দিয়াড়পাড়া গ্রামের উর্মি খাতুনের ১টি। অপর ২টি মমিনের মায়ের বলে দাবি করছেন,তার মা মেমজান। সিঁন্ধুকের মালিক টুকু প্রফেসার জানান, প্রায় আড়াই বছর আগে রুস্তমপুর বাজারে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে সিঁন্ধুকটি চুরি হয়ে যায়।

স্থানীয় কাউন্সিলর লিটন জানান, মমিন ফকির মানুষের বাড়ি-বাড়ি গিয়ে স্যালো ম্যাশিনে ধান ভাঙ্গানোর কাজ করতো। এর ফাঁকে চুরির সাথে সম্পৃক্ত ছিল তা কারোই জানা ছিলনা।

বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ তদন্ত) আব্দুল ওহায়াব বলেন, উদ্ধার করা গরু-ছাগল ও সিঁন্ধুক জব্দ করে থানায় নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ৪টি গরুর মালিককে সনাক্ত করতে পেরেছেন। চুরি যাওয়া সিন্ধুকটি টুকু প্রফেসারের বলে জানা গেছে। ঘটনার পর থেকে মমিন ফকির ও তার স্ত্রী শরিফা পালিয়ে গেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে