উপনির্বাচন বিএনপি বর্জন করলে নিজস্ব কৌশলে নির্বাচন করবে আ.লীগ

প্রকাশিত: জুন ১, ২০২১; সময়: ৭:৩১ pm |

পদ্মাটাইম ডেস্ক : জাতীয় সংসদের চার আসনের উপনির্বাচনে বিএনপির না আসার ঘোষণা তাদের রাজনৈতিক দেউলিয়াত্ব প্রমাণ করে-এমন মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ নেতারা।

জনগণের আস্থায় থাকতে চাইলে তাদের উপ-নির্বাচনে আসা উচিত। তবে বিএনপি না এলেও উপ-নির্বাচনে দলীয় বিদ্রোহী প্রার্থীদের ছাড় দেয়া হবে না বলে জানান তারা।

আগামী জুলাইয়ে জাতীয় সংসদের শূন্য হওয়া ঢাকা ১৪, কুমিল্লা ৫, সিলেট ৩ ও লক্ষ্মীপুর ২ আসনের উপনির্বাচন আয়োজনের প্রস্তুতি নিচ্ছে নির্বাচন কমিশন।

তবে ইতিমধ্যে এসব উপ-নির্বাচনে অংশ না নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি। আওয়ামী লীগ বলছে, গণতন্ত্রে বিশ্বাসী হলে বিএনপির অবশ্যই উপ-নির্বাচনে অংশ নেয়া উচিত।

আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, রাজনৈতিকভাবে তারা দেউলিয়ত্বে পরিনত হয়েছে। বিরোধী দল হিসেবে জনগণের প্রতি মূখ্য ভূমিকা পালনের যে দায়িত্ব রয়েছে সে দায়িত্ব পলন করেন নাই। করোন আক্রান্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানো এ কাজগুলো করতে তাদের কেউ বাঁধা দেয় নাই, কিন্তু তার কিন্তু জনগণের পাশে দাঁড়ায়নি।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম বলেন, তারা আগেই যেহেতু নির্বাচন করবে না বলছে, শেষ দিকে তারা হয়তো নির্বাচনে অংশ নিতে পারে। জনগণের আস্থায় থাকতে হলে তাদেরকে নির্বাচনে অংশ নিতে হবে।

শেষ পর্যন্ত বিএনপি নির্বাচনে না এলে নিজেদের মতো করে নির্বাচনী কৌশল নির্ধারণ করবে ক্ষমতাসীন দল। লক্ষ্য থাকবে ভোটার উপস্থিতি বাড়ানোর। আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম আরও বলেন, যদি শেষ পর্যন্ত না আসে তবে আমরা তো অবশ্যই আমাদের সিদ্ধান্ত জানাবো। জনগণ যেন ভোট কেন্দ্রে এসে ভোট দেয় সেভাবেই আমরা সিদ্ধান্ত নিব।

জাহাঙ্গীর কবির নানক আরও বলেন, বর্তমান সরকারের বহু উন্নয়ণ কার্যক্রম রয়েছে, সেগুলো নিয়ে আমরা জনগণের কাছে দাঁড়াতে পারবো। তফসিল ঘোষণার পরই উপ-নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী বাছাইয়ের কাজ শুরু হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে