রাজশাহীতে কমিউনিটি সেন্টারে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশের অনুমিত

প্রকাশিত: মার্চ ১, ২০২১; সময়: ১০:৪৯ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীতে কমিউনিটি সেন্টারে বিভাগীয় সমাবেশের অনুমতি পেয়েছে বিএনপি। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নগরের পাঠান পাড়ায় নাইস কনভেনশন সেন্টারে (উত্তরা কমিউনিটি সেন্টার) বিএনপিকে সমাবেশ করার অনুমতি দেয় পুলিশ।

এর আগে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ ঘিরে ‘হামলার আশঙ্কায়’ রাজশাহী থেকে সব রুটের বাস চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। কোন ধরনের পূর্ব ঘোষণা ছাড়া আকস্মিক বাস বন্ধ করে দেয়ায় যাত্রীরা চরম দুর্ভোগে পড়েছেন। মঙ্গলবার বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। সোমবার রাতে পুলিশ কমিউনিটি সেন্টারে সমাবেশ করার অনুমতি দেয়।

রাজশাহীর পরিবহণ মালিক ও শ্রমিক নেতাদের দাবি, বাস চলাচল করলে হামলার আশঙ্কা আছে। তাই শ্রমিকদের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে তারা বাস চলাচল আপাতত বন্ধ করে দিয়েছেন। পরিস্থিতি বুঝে পরে তারা আবারও বাস চলাচলের সিদ্ধান্ত নেবেন। তবে বাস বন্ধ অযৌক্তিক বলছেন যাত্রীরা।

রাজশাহী বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মতিউল হক টিটো বলেন, মঙ্গলবার রাজশাহীতে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ ঘিরে তারা সড়কে বিশৃঙ্খলা ও যানবাহনে সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কা করছেন। এ কারণে তারা সোমবার দুপুর থেকে বাস চলাচল বন্ধ রেখেছেন।

তবে রাজশাহী জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মাহাতাব হোসেন বলেন, বগুড়ায় তাদের এক শ্রমিককে মারধর করা হয়েছে। মারধরকারীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে। সকাল থেকে কিছু বাস রাজশাহী থেকে ছেড়ে যায়। তবে বাহির থেকে কোন বাস আসেনি। এছাড়াও দুপুর থেকে রাজশাহী থেকেও বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়।

এদিকে রাজশাহী থেকে হঠাৎ বাস চলাচল বন্ধের কারণে দুর্ভোগে পড়েছে সাধারণ যাত্রীরা। তারা অনেকেই কাউন্টারে এসে ফিরে যাচ্ছেন। এছাড়া বিকল্প পথে হিসেবে অন্য যানবাহনে নিজ নিজ গন্তব্যে রওনা দিচ্ছেন। এছাড়া চাঁপাইনবাবগঞ্জ কাউন্টারগুলো বন্ধ রাখা হয়েছে।

রাজশাহী মহানগর বিএনপির সভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল বলেন, বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছে কমিউনিটি সেন্টারে। তার নগরের সাহেব বাজার জিরোপয়েন্ট, গণকপাড়া মোড় ও সোনাদিঘী মোড়ে সমাবেশের অনুমতি চেয়েছিল। কিন্তু সোমবার রাতে কমিউন্টি সেন্টারে সমাবেশ করার অনুমতি দেয় পুলিশ। রাতে সেখানে মঞ্চ তৈরীর কাজ করা হয়।

তিনি বলেন, সমাবেশ বানচাল করতে সরকার কৌশলে মালিক ও শ্রমিকদের দিয়ে সোমবার সকাল থেকে রাজশাহীর সকল রুটে বাস চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে। সমাবেশের আগে এর আগেও এ রকম করা হয়েছে। এর কারণ বিভাগীয় সমাবেশে যেন মানুষ না আসতে পারে। এটি বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ নস্যাৎ করার অপচেষ্টা বলেও দাবি করেন সাবেক সিটি মেয়র বুলবুল।

রাজশাহী নগর পুলিশের মুখপাত্র ও অতিরিক্ত উপ-কমিশনার রুহুল কুদ্দুস বলেন, নগরীর ব্যবস্থাতম এলাকাগুলোতে সমাবেশের অনুমতি চেয়েছিল বিএনপি। কিন্ত সংঘাত এড়াতে ও মানুষের জানমালের নিরাপত্তা দিতে কমিউনিটি সেন্টারে অনুমতি দেয়া হয়েছে। কমিউনিটি সেন্টারের ভিতরে লোক না ধরলে পাশে জায়গা আছে। সেকানে তারা অবস্থান করে নেতাদের বক্তব্য শুনতে পারবেন।

  • 203
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে