ষড়যন্ত্র করে নৌকাকে হারিয়েছে এমপি মমিন মন্ডল

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৯, ২০২১; সময়: ৪:৪৩ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিরাজগঞ্জ : সিরাজগঞ্জের বেলকুচি পৌর নির্বাচনে পরাজিত আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী বেগম আশানুর বিশ্বাস বলেছেন, জাতির পিতা, স্বাধীনতা আর উন্নয়নের প্রতীক নৌকা হারেনি। প্রশাসনকে দিয়ে প্রভাব ও আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মীদের অত্যাচার হুমকী-ধমকি দিয়ে জোর করে ব্যালট পেপার ছিনিয়ে নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী সন্ত্রাসী সাজ্জাদুল হক রেজাকে বিজয়ী করে আমার নৌকাকে হারিয়ে দেয়া হয়েছে। এজন্য এমপি মমিন মন্ডল পুরোপুরী দায়ী। আমাদের স্বতঃফুর্ততা থাকলেও তার ষড়যন্ত্রেই আওয়ামীলীগ বিজয় হারিয়েছে।

শুধু তাই নয়, দল থেকে বহিস্কৃত স্বতন্ত্র প্রার্থী রেজা প্রশাসনের পরিকল্পিত নীল নকশায় জোর করে ভোট নিয়ে বিজয়ী হয়ে তার সন্ত্রাসী তৎপরতা বৃদ্ধি করে আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মীদের উপর হামলা, ভাংচুর চালাচ্ছে। নৌকার কাজ করা বেশ কয়েকজন আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মী তার সন্ত্রাসীদের অত্যাচারে বাড়ি ছাড়া। বেগম আশানুর বিশ্বাস মঙ্গলবার দুপুরে কামারপাড়ার নিজ বাস ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব অভিযোগ তোলেন।

আশানুর বিশ্বাস বলেন, নির্বাচনের পর রেজার নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা আমাদের বেলকুচি উপজেলা আওয়ামীলীগের কার্যালয় দখল করে চেয়ারসহ নেতাদের টাঙ্গানো ছবি ভাংচুর করেছে। পুরো এলাকা এখন আতংকের নগরীতে পরিণত হয়েছে। মাঝে-মাঝেই আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মীদের উপর হামলা হচ্ছে। প্রশাসনকে বললেও ব্যবস্থা নিচ্ছেনা।

নির্বাচনের দিনের ঘটনা টেনে তিনি বলেন, ১৬ জানুয়ারী জেলার ৪টিতে পৌর মেয়রের নির্বাচন হচ্ছে। সবচেয়ে ভাল অবস্থা ছিল আমার। কারন মেয়র থাকাবস্থায় ব্যাপক উন্নয়ন করেছি। দল-মত নির্বিশেষে সবাই আমার জন্য নিবেদিত ছিল। তাই আমি মেয়র হবো পুরো জেলাবাসীর বিশ্বাস ছিল। তবে নির্বাচনের আগের দিন রাতে জানতে পারি এমপি মমিন মন্ডল ও তার বাবা সাবেক এমপি মজিদ মন্ডলের নির্দেশে প্রশাসন আমার বিরুদ্ধে কাজ করবে। আর জয় করাবে আওয়ামীলীগ থেকে বহিস্কৃত রেজাকে।

এজন্য সকালেই কেন্দ্র গুলো সন্ত্রাসীদের দিয়ে দখলে নেয় স্বতন্ত্র প্রার্থী রেজা। তার এজেন্টরা ভোটারদের কাজ থেকে ব্যালট পেপার ছিনিয়ে নিয়ে নারিকেল গাছ প্রতিকে সিল মারতে থাকে। আর আমাদের এজেন্টদের নৌকার ব্যাচ পর্যন্তও কেড়ে নেয়া হয়। দায়িত্বরত প্রশাসনের কাছে অভিযোগ দিয়ে কোন কাজ হয়নি। তারা পুরোপুরী এমপি মমিন মন্ডলের নির্দেশ অনুযায়ী নৌকার বিরুদ্ধে কাজ করেছে। বিজিবি দিয়ে আমার নেতা-কর্মীদের ধাওয়া করে ভোট কেন্দ্রে আসতে দেয়া হয়নি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আওয়ামীলীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার কাছে আমার দাবী দ্রুত আওয়ামীলীগকে বাঁচাতে পদক্ষেপ নিন। আর কেন মমিন মন্ডলের ষড়যন্ত্রে আপনার নৌকাকে হারানো হয়েছে তাও খতিয়ে দেখুন।

এ সংবাদ সম্মেলনে বেলকুচি উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ইউসুফজী খান, সাধারন সম্পাদক ফজলুল হক সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ আলী আকন্দ, পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুল মজিদ প্রামানিক, প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

  • 389
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে