রাজশাহী জেলার নেতৃত্ব চান তিন নারী নেত্রী

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৫, ২০১৯; সময়: ৩:৩৭ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : আগামী ৮ ডিসেম্বর রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলন ঘিরে চলছে প্রস্তুতি। একই সঙ্গে সম্মেলনের দিন ঘোষণার পর অনেকেই প্রস্তুতি নিয়েছেন শীর্ষ পদগুলাতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে। তারা নিজের পক্ষ প্রচার প্রচারণা চালানোর পাশাপাশি কেন্দ্রে লবিংয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। এ তালিকায় রয়েছেন তিনজন নারী নেত্রী। যাদের মধ্যে একজন সভাপতি ও দুইজন সাধারণ সম্পাদক পদ পাওয়ার আশায় কেন্দ্র থেকে শুরু করে তৃণমূলের নেতাদের সমর্থন আদায়ে চেষ্টা চালাচ্ছেন তারা।

এরা হলেন, সাবেক এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আক্তার জাহান, সংরক্ষিত আসনের এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এবং যুব মহিলা লীগের সহসভাপতি অ্যাডভোকেট আবিদা আনজুম মিতা এমপি এবং জেলা মহিলা লীগের সভাপতি মর্জিনা পারভীন। এদের মধ্যে আক্তার জাহান সভাপতি এবং মিতা ও মর্জিনা সাধারণ সম্পাদক পদ প্রত্যাশী।

মর্জিানা পারভীন বলেন, ‘‘দীর্ঘদিন ধরেই তিনি সহযোগি সংগঠনের গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। দুইবার এমপির মনোনয়ন চেয়ে বঞ্চিত হয়েছি। এবার আশা করছি জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আমাকে মূল্যায়ন করা হবে।’’

আদিবা আনজুম মিতা বলেন, আমি দীর্ঘদিন যাবত আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত আছি। সে জন্য জেলা আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত করার জন্য কাজ করছে চাই। দলের দূর্দিনের ত্যাগী নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন করে আওয়ামী লীগকে এগিয়ে নিতে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে আগ্রহী। আশা করে দলের নেতারা আমাকে মূল্যায়ন করবেন।

রাজশাহীর তিন নারী নেত্রী ছাড়াও এবারের সম্মেলনে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পদ প্রত্যাশী হিসেবে যাদের নাম আলোচনায় এসেছে তাদের মধ্যে রয়েছেন, রাজশাহী-১ (গোদাগাড়ী-তানোর) আসনের তিনবারের এমপি ও জেলার বর্তমান সভাপতি ওমর ফারুক চৌধুরী, রাজশাহী-৪ (বাগমারা) আসনের তিনবারের সংসদ সদস্য প্রকৌশলী এনামুল হক, রাজশাহী-৬ (চারঘাট-বাঘা) আসনের তিনবারের এমপি ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এবং রাজশাহী-৫ (পুঠিয়া-দুর্গাপুর) আসনের সাবেক এমপি আব্দুল ওয়াদুদ দারা, জেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ। সভাপতি পদ প্রত্যাশী হিসেবে এইসব নেতাদের পক্ষে বিভিন্নভাবে প্রচার চালাচ্ছেন তাদের সমর্থকরা।

অপরদিকে, সাধারণ সম্পাদক পদে এবার আলোচনায় রয়েছেন, রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনের দুইবারের এমপি আয়েন উদ্দিন, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও বাঘা উপজেলা চেয়ারম্যান লায়েব উদ্দীন লাভলু, জেলা কৃষক লীগের সভাপতি রবিউল আলম বাবু, বাগমারা উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান জাকিরুল ইসলাম সান্টু, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান মানজাল, বর্তমান সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম আসাদুজ্জামান, আলফোর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক, জেলার দপ্তর সম্পাদক ফারুক হোসেন ডাবলু। সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হিসেবে এদের পক্ষে প্রচার চালছে বিভিন্নভাবে।

রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সূত্রমতে, ২০১৪ সালের ৬ ডিসেম্বর রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। আর পুর্নাঙ্গ কমিটি অনুমোদন হয় এক বছর পর। ২০১৫ সালের ২৬ নভেম্বর দলের সভাপতি শেখ হাসিনা ৭১ সদস্যের কমিটি অনুমোদন দেন। তবে অনুমোদিত কমিটি জেলায় পাঠানো হয় ৭ ডিসেম্বর। এর আগে সম্মেলনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এ কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হন ওমর ফারুক চৌধুরী এমপি ও সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • রাজশাহীতে আরও ৭৮ জনের করোনা শনাক্ত
  • দেড় বছর পর বাঘার স্কুলছাত্র হত্যান্ডের রহস্য উদ্ঘাটন
  • রাজশাহী রেঞ্জের এসপির বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা
  • করোনায় আরও ৪২ জনের মৃত্যু, ২,৯৯৫ রোগী শনাক্ত
  • সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে পিইসি পরীক্ষ
  • রাজশাহীতে বখাটের এসিডে ঝলসে গেছে মাদ্রাসাছাত্রীর মুখ
  • সিনহা হত্যা, চার পুলিশ ও তিন সাক্ষীর ৭ দিনের রিমান্ড
  • রাজশাহী বিভাগের সর্বশেষ করোনা পরিস্থিতি
  • বৃক্ষ মেলা না হওয়ায় নার্সারী খাতে লোকসান আড়াই কোটি টাকা
  • এইচএসসি পরীক্ষা সেপ্টেম্বরে
  • দেশে একদিনে ৩৩ মৃত্যু, আক্রান্ত ২৯৯৬
  • বাতিল হচ্ছে পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণির সমাপনী পরীক্ষা
  • ‘অসাম্প্রদায়িক চেতনার মধ্য দিয়ে গড়তে হবে সমৃদ্ধির সোপান’
  • রাজশাহী অঞ্চলে করোনায় মৃত্যু বেড়ে ২০২
  • ভাদ্র মাসের বন্যা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সতর্কতা
  • উপরে