লকডাউনে আমি ঘরে থাকতে চাই, আমাকে খাবার দিন

প্রকাশিত: এপ্রিল ১৩, ২০২১; সময়: ৪:২৪ pm |
খবর > মতামত

আনছার তালুকদার স্বাধীন : লকডাউন ভালোভাবে কার্যকর করার জন্য প্রতিটি গ্রাম, ইউনিয়ন, থানা তথাপি শহর পর্যায়ে খেটে খাওয়া দরিদ্র মানুষদের লিস্ট করে সরকারি প্রণোদনার টাকা অথবা খাবার আজ এবং আগামীকালের মধ্যে তাদের বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার জন্য জনপ্রতিনিধিদের কাছে বিশেষভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি।

পেটের ক্ষুধা বড় ক্ষুধা। পেটে যদি খাবার না থাকে, ঘরে যদি খাবার না থাকে, আবার বাইরে যদি কিস্তির টাকা আদায়কারী এসে দরজায় কড়া নাড়তে থাকে তাহলে করোনাভাইরাস ও লকডাউন এর কথা গরিব-দুঃখী মানুষের মাথায় থাকবে না। সেক্ষেত্রে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী বা জনপ্রতিনিধিরা যতই তাদেরকে ঘরের বাইরে আসতে নিষেধ করুক না কেন তারা এ সব কথা শুনবে না। প্রয়োজনে মার খাবে তবুও বাইরে বেরিয়ে আসবে।

পাশাপাশি যাদের ঘরে খাবার আছে, যারা সরকারী প্রণোদনার টাকা বা অন্য কোন প্রকার সাহায্য সহযোগিতা ছাড়াই টিকে থাকতে পারবেন তাদের এ ধরনের প্রণোদনার টাকা ও খাবার গ্রহণ থেকে বিরত থাকার জন্য অনুরোধ করছি।

সমাজে যারা উচ্চ বিত্তশালী আছেন, টাকা-পয়সা ওয়ালা আছেন, তাদের কাছে অনুরোধ করব শুধু সরকারের উপর নির্ভর না করে আপনি আপনার প্রতিবেশীকে খাবার দিয়ে, অর্থ দিয়ে সহযোগিতা করুন যাতে এই লকডাউনটা কার্যকর করে সবাই মিলে সুস্থ সুন্দর থাকা যায়।

সবশেষে বলবো করোনাভাইরাস বা যে কোন রোগ কারো আপন নয়। যাকে পাবে তাকে ধরবে। তাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, ঘরে থাকুন, সুস্থ থাকুন। লকডাউন কার্যকর করতে সরকার ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে সহযোগিতা করুন।

লেখক : স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী, জাতীয় দৈনিক আজকের বসুন্ধরা।

  • 26
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে