‘সে আমার স্ত্রী, মেয়ে নয়’

প্রকাশিত: ১৬-১১-২০২০, সময়: ১২:৩৮ |
Share This

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : স্বামীর উচ্চতা ৬ ফিট ২ ইঞ্চি, আর স্ত্রীর মাত্র ৪ ফিট ৩ ইঞ্চি। স্বামী ও স্ত্রীর মধ্যে উচ্চতায় উনিশ-বিশ হয়েই থাকে, তাই বলে এত ব্যবধান। আর এই দেখে সবাই ভেবে বসে ৩৭ বছর বয়সী রিচার্ডের মেয়ে বোধ হয় নানিতি কিলমার।

তারা দু’জনেই ফিলিপাইনের নাগরিক। তবে বর্তমানে তারা বসবাস করেন নিউ ইয়র্কে। তাদের একটি মেয়েও আছে। রিচার্ড জানান, আমাদের দু’জনের একটি ডেটিং ওয়েবসাইটে যোগাযোগ হয়। এরপরই প্রেম অতঃপর বিয়ে। আমার স্ত্রী যেমনই হোক না কেন, আমি তাকে ভালোবাসি। আর এজন্যই বিয়ে করেছি।

রিচার্ড আরও জানান, নানিতি অতীতে অনেক কষ্ট সহ্য করেছে তার উচ্চতা নিয়ে। অনেক খারাপ কটূক্তির শিকার হয়েছে সে। এই বিষয়ে একমত পোষণ করে নানিতি বলেন, আমি যখন পরিণত বয়সে পৌঁছায়, তখনও আমাকে দেখে সবাই ভাবত আমি বোধ হয় পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ি। লোকে নানা মন্তব্য করত। যদিও আমি বরাবরই আত্মবিশ্বাসী ছিলাম। আমি পড়ালেখা শেষ করেছি অতঃপর চাকরিও করছি।

আক্ষেপ করে নানিতি বলেন, আমার মতো অনেকেই আছেন যাদের উচ্চতা কম, তারা সমাজের কাছে নিগৃহীত। বিশেষ করে বিয়ের জন্য বর খুঁজে পাওয়া যায় না। তবে আমি অত্যন্ত ভাগবতী যে, রিচার্ড প্রথম দেখাতেই আমাকে জীবনসঙ্গী করার সিদ্ধান্ত নেয়। এখন আমরা খুবই সুখী জীবন-যাপন করছি।

তারা যখন ডেটিং ওয়েবসাইটে দু’জন দু’জনকে ভালোবাসি বলেছিল, তখনও রিচার্ড জানত না নানিতির উচ্চতা এতটা কম। এ বিষয়ে তিনি বলেন, নানিতি আমাকে বলেছিল তার উচ্চতা কম। তবে আমি ভাবিনি সে এতোটা খাটো হবে।

তারা দীর্ঘ তিন বছর দূরে থেকেই একে অন্যকে ভালোবেসেছে। সবচেয়ে মজার বিষয় হলো, রিচার্ড যখন তার স্ত্রীর মুখের দিকে তাকায় তখন তাকে অনেকটা ঝুঁকতে হয়। আর নানিতি যখন তার স্বামীকে দেখতে চায় তখন তাকে আকাশপানে তাকাতে হয়।

আরো মজার বিষয় হলো, তারা যখন একসঙ্গে ঘরের বাইরে বের হয়, সবাই কৌতূহল হয়ে তাদের দিকে তাকায়। অনেকে তো রিচার্ডকে ভুল বুঝে বসে, ভাবে এতো ছোট মেয়ের সঙ্গে এই বুড়ো লোকটি প্রেম করছে! রিচার্ড বলেন, সবাইকে তো আর বোঝানো সম্ভব নয়, সে আমার স্ত্রী, মেয়ে নয়।

রিচার্ড ও নানিতির মেয়ের বয়স বর্তমানে পাঁচ বছর। সে সুস্থ স্বাভাবিকভাবেই বেড়ে উঠছে। তাদের মেয়েও মজার ছলে বলে, বাবা কত লম্বা আর মা অনেক ছোট!

  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a comment

উপরে