‘ক্রীড়াঙ্গনে বঙ্গবন্ধু’ বইটি দেশব্যাপী ব্যাপক সাড়া জাগালো

প্রকাশিত: ১৫-০৩-২০২০, সময়: ১৪:৪৯ |
Share This

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীর কৃতি সন্তান সাতক্ষীরা জেলার সহকারী জেলা শিক্ষা অফিসার (মাধ্যমিক), বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের নির্বাহী সদস্য ও রাজশাহী জেলা ক্রীড়া সংস্থার সদস্য শেখ মনিরুল ইসলাম আলমগীর দীর্ঘ সাতবছর অক্লান্ত পরিশ্রম করে রচনা করেছেন ‘ক্রীড়াঙ্গনে বঙ্গবন্ধু’ নামক একটি গবেষণামূলক বই। বইটি দেশব্যাপী ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। ‘ক্রীড়াঙ্গনে বঙ্গবন্ধু’ বইটি একটি গবেষণামূলক বই। এ ধরনের গবেষণামূলক বই বাংলাদেশে প্রথম। আর সবচেয়ে বড় কথা হলো এই বইটি রচিত হয়েছে ঢাকার বাইরে রাজশাহী শহর থেকে। রাজশাহী মহানগরীতে ১৯৯৭ সালে স্থাপিত বাংলাদেশের প্রথম ও একমাত্র বেসরকারি ক্রীড়া পাঠাগার ও সংগ্রহশালা ‘শেখ মনিরুল ইসলাম আলমগীর ক্রীড়া পাঠাগার ও সংগ্রহশালা’য় সংরক্ষিত শত শত ক্রীড়া বিষয়ক স্মরণিকা ও অসংখ্য বই ছাড়াও বিভিন্ন মাধ্যম থেকে বইটির তথ্য ও উপাত্ত সংগ্রহ করা হয়েছে।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান শৈশব থেকেই ছিলেন একজন কৃতি খেলোয়াড় ও ক্রীড়া সংগঠক। বঙ্গবন্ধুর পরিবার মানেই ক্রীড়া প্রেমিক পরিবার। বাংলাদেশের ক্রীড়াকে এগিয়ে নিতে বঙ্গবন্ধুর পরিবারের রয়েছে বিপুল অবদান। বইটিতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, তাঁর পরিবার, মুক্তিযুদ্ধকালীন এবং দেশের ক্রীড়াঙ্গনের উন্নয়নে বঙ্গবন্ধুর গৃহিত কার্যক্রমের শত শত দুর্লভ চিত্রসহ হাজার হাজার তথ্য রয়েছে। এ গ্রন্থে বঙ্গবন্ধু ও তাঁর শাসনামলে ক্রীড়াঙ্গনের বিস্তারিত স্থান পেয়েছে।

৩৫২ পৃষ্ঠার ‘ক্রীড়াঙ্গনে বঙ্গবন্ধু’ বইটিতে ৪৪ টি বিষয়ে বঙ্গবন্ধু, তাঁর পরিবার-পরিজন ও বঙ্গবন্ধুর জীবিতকালীন যেসব ক্রীড়াবিদ, ক্রীড়াসংগঠক, ক্রীড়া সংস্থাসমূহ ও গণমাধ্যম ক্রীড়াক্ষেত্রে যে অসামান্য অবদান রেখে গেছেন তা বিশ্বব্যাপী বাংলাভাষী মানুষের কাছে উপস্থাপন করা হয়েছে। অত্যন্ত তথ্যবহুল এই বইটিতে শত শত দুর্লভ চিত্র সংযোজিত হয়েছে যা বইটির গুরুত্বকে বহুগুনে বৃদ্ধি করেছে। ইতিমধ্যে বইটি ক্রীড়ামোদী মানুষ ছাড়াও সকল শ্রেণির পাঠকের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়েছে।

‘ক্রীড়াঙ্গনে বঙ্গবন্ধু’ বইটিতে বাংলাদেশের ক্রীড়াকর্মকান্ড যেগুলো বঙ্গবন্ধুর জীবিতকালীন সংগঠিত হয়েছে সেগুলোর তথ্যসমূহ ধারাবাহিকভাবে তুলে ধরা হয়েছে। এছাড়াও তুলে ধরা হয়েছে সমসাময়িক বিভিন্ন প্রসঙ্গ। বইটির সূচিতে রয়েছে -বঙ্গবন্ধু : এক ঐতিহ্যবাহী পরিবারের সন্তান, ক্রীড়াঙ্গনের নয়নমনি ; ভারত বিভক্তি ও পূর্ব পাকিস্তানে খেলাধুলার চালচিত্র; যুদ্ধবিধ্বস্ত স্বাধীন বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে ক্রীড়াঙ্গনের অগ্রযাত্রা; ক্রীড়ামোদী , খেলোয়াড়, সংগঠক ও পৃষ্টপোষক হিসেবে বঙ্গবন্দু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবার ; বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ছিলেন ক্রীড়ানুরাগী এ স্নেহময়ী মহিলা ; শহিদ শেখ- কামাল ছিলেন ক্রীড়াঙ্গনের মূর্ত প্রতীক; আবাহনী ক্রীড়া চক্র -শেখ কামালের অনন্য কীর্তি ; শেখ জামাল-এর নামের সাথে জড়িয়ে আছে লেফট্যান্যান্ট শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব; শেখ রাসেলের স্মৃতির অন্যতম ধারক ও বাহক শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র ; বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা -ক্রীড়ার উন্নয়নে চির ভাস্কর ; নারী ক্রীড়ামোদী শেখ রেহানা; শহিদ শেখ কামালের স্ত্রী সুলতানা কামাল ছিলেন ক্রীড়াঙ্গনের উজ্জ্বল নক্ষত্র ; শেখ ফজলুল হক মনি ছিলেন ক্রীড়াঙ্গনের কলম ; মহিলা ক্রীড়াঙ্গনে বঙ্গবন্ধু ছিলেন পথপ্রদর্শক ; জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর পরিবারের প্রতি বাঙালি জাতির শ্রদ্ধার নিদর্শন ; ক্রীড়াবান্ধব বঙ্গবন্ধু পরিবারের সদস্যের নামে কয়েকটি ক্রীড়াস্থাপনার চিত্র ; বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতার আহবানের ফসল স্বাধীন বাংলা ফুটবল দল ; স্বাধীন দেশে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে ফুটবলের অগ্রযাত্রা ; একনজরে বঙ্গবন্ধুর সর্বাত্মক সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত ক্রীড়া কার্যক্রম -এই অংশে বঙ্গবন্ধুর জীবিতকালীন ফুটবল, অ্যাথলেটিক্্ার, সাঁতার, হাক, ভলিবল, বাস্কেটবল,ব্যাডমিন্টন, বকি্্ারং,জিমন্যাস্টিক্্ার, লন টেনিস, টেবিল টেনিস, ভারোত্তোলন , জুডো ও কারাতে, সাইক্লিং, শরীর গঠন, কুস্তি, নৌকা বাইচ, ক্রিকেট, কাবাডি, দাবা সহ বাংলাদেশ বধির সংস্থা, জাতীয় স্কুল ও মাদ্রাসা ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও বাংলাদেশ ক্রীড়া লেখক সমিতির ক্রীড়া কার্যক্রমের সচিত্র বিবরণ রয়েছে। বইটির শেষ বিষয়বস্তু হচ্ছে সংবাদপত্র ও ধারাভাষ্যকারদের ভূমিকা ।

‘শেখ মনিরুল ইসলাম আলমগীর ক্রীড়া পাঠাগার ও সংগ্রহশালা’ থেকে ‘ক্রীড়াঙ্গনে বঙ্গবন্ধু’ বইটি ছাড়াও ‘চোখের আলোয় চীন’ নামক একটি ভ্রমন কাহিনী এবারের বইমেলায় বের হয়েছে।

‘ক্রীড়াঙ্গনে বঙ্গবন্ধু’ বইটি প্রকাশ করেছে দেশের অন্যতম প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান ‘পাঞ্জেরী পাবলিকেশন লিমিটেড’। বইটির প্রকাশনা মান অত্যন্ত উঁচু। বইটির বাজার মূল্য ৬৫০ টাকা লেখা থাকলেও ২৫% ছাড়ে দেশের অভিজাত লাইব্রেরিতে পাওয়া যাচ্ছে। এছাড়াও রকমারি ডটকমের মাধ্যমে অনলাইনে বইটি সংগ্রহ করা যাবে। বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনের ইতিহাসে এই বইটি একটি অনন্য দলিল। এ ধরনের একটি বই জাতিকে উপহার দিয়ে লেখক শেখ মনিরুল ইসলাম আলমগীর ক্রীড়াঙ্গনে যে ভূমিকা প্রদর্শন করেছেন তা বাংলাদেশের ক্রীড়ার ইতিহাসে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে