ঈদ সামনে রেখে তৎপর অজ্ঞান পার্টি, গ্রেপ্তার ৩

প্রকাশিত: এপ্রিল ১৮, ২০২২; সময়: ১২:৫৬ pm |
খবর > জাতীয়

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ঈদ সামনে রেখে রাজধানীতে আবারও তৎপর হয়ে উঠেছে অজ্ঞান পার্টি। কখনও বাসের যাত্রীবেশে, আবার কখনও চায়ের দোকানে ক্রেতা সেজে সাধারণের সঙ্গে মিশে গিয়ে খাবারে ঘুমের ওষুধ দিয়ে অজ্ঞান করে লুটে নেয় সর্বস্ব। এমন একটি চক্রের তিন সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। জব্দ করা হয়েছে বিভিন্ন ওষুধ।

পুলিশ জানিয়েছে, আগে থেকেই কোনো ব্যক্তিকে করা হয় টার্গেট। এরপর বাসে কিংবা চায়ের দোকানে তার সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়ে তোলেন ছদ্মবেশী অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা। সুযোগ বুঝে তার খাবারে মেশানো হয় উচ্চমাত্রার চেতনানাশক ওষুধ। পরে অজ্ঞান হয়ে পড়লেই লুটে নেওয়া হয় সঙ্গে থাকা মোবাইল মানিব্যাগসহ মূল্যবান জিনিসপত্র।

গ্রেপ্তার এ সদস্য বলেন, আমরা প্রথমে বন্ধুত্ব করি। তারপর খাবারের সাথে গোলানো ট্যাবলেট খাইয়ে দেই। এরপর ঘুমিয়ে পড়লেই টাকাসহ তাদের জিনিসপত্র নিয়ে নিই।

দীর্ঘদিন ধরে চক্রটি লঞ্চ, বাস, ট্রেন, গরুর হাটে ক্রেতা বিক্রেতাদের টার্গেট করে লুট করে আসছিল। রোববার রাতে রাজধানীর আজিমপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে অজ্ঞান পার্টির তিন সদস্যকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এ বিষয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) লালবাগ বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার জসিম উদ্দিন মোল্লা বলেন, ট্যাবলেটটা আগে থেকেই গুলিয়ে লিকুইড করে রাখে এই চক্র।

যখন কারও সাথে বন্ধুত্ব হয়ে যায় তখন কৌশলে খাবারে, চা বা ডাবের পানির সাথে মিশিয়ে খাইয়ে দেয় ওরা। যখন টার্গেটের ব্যক্তির ঘুম আসে বা ঘুম ঘুম ভাব হয়, তখন তাদের টাকা হাতিয়ে নেওয়া হয়।

তিনি বলেন, এমন প্রতি অকেশনেই বিশেষ করে রোজা, ঈদ বা গরুর হাটে সংবদ্ধ হয়ে মাঠে নামে এই চক্র। আসন্ন ঈদকে সামনে রেখে এ ধরনের কার্যক্রম ঠেকাতে তৎপরতা বাড়িয়েছে পুলিশ।

ঈদুল ফিতরকে কেন্দ্র করে রাজধানীতে ছিনতাই ও অজ্ঞান পার্টির দৌরাত্ম্য বেড়ে যাওয়ায় পুলিশের অভিযান জোরদার করা হয়েছে বলে জানান লালবাগ বিভাগের ডিসি।

গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে