মন্ত্রীর আশ্বাসে ট্রেন ধর্মঘট প্রত্যাহার

প্রকাশিত: এপ্রিল ১৩, ২০২২; সময়: ১২:৪৬ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : অর্থ মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপন বাতিলের রেলমন্ত্রীর কাছ থেকে আশ্বাস পেয়ে ধর্মঘট প্রত্যাহার করেছেন চালক, সহকারী এবং টিকেট পরিদর্শকরা।

বুধবার দুপুরে কমলাপুর রেলস্টেশনে প্রজ্ঞাপন বাতিলের আশ্বাস দেন মন্ত্রী। এরপরই ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন কর্মচারীরা।

এর আগে সকাল থেকে ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকে কর্মচারীদের আন্দোলনের কারণে। বেতন-ভাতা সংক্রান্ত সমস্যার সুষ্ঠু সমাধান হলেই কাজে ফিরবেন বলে আন্দোলনরত কর্মচারীরা জানান।

সমস্যা সমাধানে তাদের নিয়ে কমলাপুরে বৈঠকে বসেন মন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন। দীর্ঘসময় বৈঠকের পর দুপুর ১২টার দিকে মন্ত্রী প্রজ্ঞাপন বাতিলের আশ্বাস দিলে কর্মচারীরা তাদের আন্দোলন প্রত্যাহারের ঘোষণা দেয়।

দৈনিক আট ঘণ্টার বেশি কাজ করলে বেসিকের হিসেবে বাড়তি অর্থ পেতেন রেলের রানিং স্টাফরা। এছাড়া অবসরের পর বেসিকের সঙ্গে এর ৭৫ শতাংশ অর্থ যোগ করে অবসরকালীন অর্থের হিসাব হতো। কিন্তু গত বছরের ৩ নভেম্বর এসব সুবিধা বাতিল করে প্রজ্ঞাপন জারি করে সরকার।

সরকারের সিদ্ধান্তের পর আন্দোলনে নামেন রানিং স্টাফ ও শ্রমিক কর্মচারী সমিতি। আন্দোলনের মুখে গত ৩০ জানুয়ারি রেলওয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকের পর কর্মসূচি স্থগিত করেন তারা।

১০ এপ্রিল অর্থ বিভাগের এক আদেশে, রেলওয়ের রানিং স্টাফদের মূল বেতনের সঙ্গে রানিং অ্যালাউন্স যোগ করে পেনশন ও আনুতোষিক প্রদানের প্রস্তাব খারিজ করে দেওয়া হলে কর্মচারীদের মধ্যে ফের অসন্তোষ দেখা দেয়। এরপর হঠাৎ আজ ভোর থেকে সারা দেশে ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেয় ট্রেনের চালক, সহকারী চালক, গার্ড ও টিকিট পরিদর্শকরা। এতে দুর্ভোগে পড়েন যাত্রীরা।

বিষয়টির সমাধানে ঢাকার কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে যান রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন, রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

সেখানে গিয়ে আন্দোলন করা কর্মচারীদের সঙ্গে কথা বলে প্রজ্ঞাপন বাতিলের সিদ্ধান্তের কথা জানান মন্ত্রী। মন্ত্রীর বক্তব্যের পরই ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দেওয়া হয় আন্দোলন করা কর্মচারীদের পক্ষ থেকে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপে