১০ হাজার টাকার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষিকা সাঈদাকে হত্যা

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৪, ২০২২; সময়: ১১:৪১ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক সাঈদা গাফফারের কাছ থেকে মাত্র ১০ হাজার টাকা লুট করতে তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। গত ১১ জানুয়ারি থেকে নিখোঁজ সাঈদা গাফফারের মরদেহ শুক্রবার সকালে গাজীপুরের কাশিমপুর থানার পানিশাইল এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পুষ্টি ও খাদ্যবিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের অবসরপ্রাপ্ত এই অধ্যাপকের নিখোঁজের ঘটনায় তার মেয়ে সাঈদা আফরিন ১২ জানুয়ারি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছিলেন।

শুক্রবার রাতে জিডির তদন্ত কর্মকর্তা ও কাশিমপুর থানার উপপরিদর্শক দীপঙ্কর রায় জানান, পানিশাইল এলাকায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষকের একটি আবাসন প্রকল্পের নির্মাণকাজের তত্ত্বাবধানে ছিলেন সাঈদা গাফফার। সেই প্রকল্পের নির্মাণ শ্রমিকরাই তাকে হত্যা করেছে। এ ঘটনায় নির্মাণ শ্রমিক আনারুলকে গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর থেকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

দীপঙ্কর রায় বলেন, অধ্যাপক সাঈদা গাফফার ১১ জানুয়ারি প্রকল্প এলাকায় যান। বিকেলের দিকে আনারুলকে তিনি কাজের পারিশ্রমিকের টাকা দেন। সে সময় তার কাছে অতিরিক্ত ১০ হাজার টাকা ছিল এবং ওই শ্রমিক তা দেখে ফেলে। ওই টাকা লুট করতেই আনারুল তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে।

পরে অধ্যাপকের ব্যাগ থেকে তার বাসার নিয়ে আনারুল বাসায় যায় এবং আরও লুটপাট চালায় বলেন তিনি। গ্রেপ্তার আনারুল প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এ সব তথ্য স্বীকার করেছে বলে তদন্ত কর্মকর্তা দীপঙ্কর জানান।

কাশিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) শেখ মিজানুর রহমান জানান, প্রকল্প এলাকায় পাশেই একটি বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করছিলেন নিহত অধ্যাপক। হত্যার পর তার মরদেহ পাশের জঙ্গলে ফেলে দেওয়া হয়। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ শহীদ তাজউদ্দীন মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে