ওমিক্রন : মসজিদে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতে নির্দেশনা

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৯, ২০২১; সময়: ১০:১৮ am |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : করোনাভাইরাসের দক্ষিণ আফ্রিকান ধরন ‘ওমিক্রন’ সংক্রমণ প্রতিরোধে মসজিদসহ সব উপাসনালয়ে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতের পদক্ষেপ কঠোরভাবে বাস্তবায়নের অনুরোধ জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। রোববার অধিদফতরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক ডা. নাজমুল ইসলামের সই করা এক বিজ্ঞপ্তিতে এ সম্পর্কে জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, দক্ষিণ আফ্রিকা ও অন্যান্য দেশে করোনাভাইরাসের দক্ষিণ আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট (ধরন) ‘ওমিক্রন’-এর সংক্রমণ দেখা দেওয়ায় অধিকতর সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সব দেশকে এ সম্পর্কে সতর্ক করেছে।

যুক্তরাজ্যসহ অনেক দেশ দক্ষিণ আফ্রিকা, নামিবিয়া, জিম্বাবুয়ে, বতসোয়ানা, এসওয়াতিনি ও লেসোথোর সঙ্গে আকাশপথে যোগাযোগ বন্ধ করেছে। নতুন এ ভ্যারিয়েন্ট ডেল্টা থেকেও অধিক সংক্রামক বলে বিশেষজ্ঞরা মত দিয়েছেন। তাই এটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

পদক্ষেপ সম্পর্কে বলা হয়েছে, মসজিদসহ সব উপাসনালয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা নিশ্চিত করতে হবে। সব ধরনের সামাজিক, রাজনৈতিক, ধর্মীয় ও অন্যান্য জনসমাগম নিরুৎসাহিত করতে হবে।

কোডিড-১৯ রোগ নিয়ন্ত্রণে কমিউনিটি পর্যায়ে মাস্ক পরাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার সচেতনতা তৈরির জন্য মাইকিং ও প্রচারণা চালানো যেতে পারে। এ ক্ষেত্রে প্রয়োজনে মসজিদ/মন্দির/গির্জা/প্যাগোডার মাইক ব্যবহার করা যেতে পারে এবং ওয়ার্ড কাউন্সিলর/ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যসহ নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করা যেতে পারে।

এছাড়াও অফিসে প্রবেশ এবং অবস্থানকালে বাধ্যতামূলকভাবে নাক-মুখ ঢেকে মাস্ক পরা নিশ্চিত করার পদক্ষেপ বাস্তবায়নে কঠোরতা দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। এতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা দাফতরিকভাবে নিশ্চিত করতেও বলা হয়েছে।

গত এপ্রিলে দেশে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় সরকারের ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয় মসজিদে জামায়াতে নামাজ পড়ার ক্ষেত্রে কিছু নির্দেশনা জারি করে। এতে মসজিদগুলোতে জামায়াতে নামাজের জন্য আবশ্যিকভাবে পালনীয় কয়েকটি শর্ত যুক্ত করা হয়। শর্তের মধ্যে ছিল, মসজিদের প্রবেশদ্বারে হ্যান্ড স্যানিটাইজার/হাত ধোয়ার ব্যবস্থাসহ সাবান-পানি রাখতে হবে এবং আগত মুসল্লীকে অবশ্যই মাস্ক পরে মসজিদে আসতে হবে। প্রত্যেককে নিজ নিজ বাসা থেকে ওযু করে, সুন্নাত নামাজ ঘরে আদায় করে মসজিদে আসতে হবে এবং ওজু করার সময় কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে।

মসজিদে কার্পেট বিছানো যাবে না। পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের পূর্বে সম্পূর্ণ মসজিদ জীবাণুনাশক দ্বারা পরিষ্কার করতে হবে, মুসল্লিদের প্রত্যেককে নিজ নিজ দায়িত্বে জায়নামাজ নিয়ে আসতে হবে। কাতারে নামাজে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে