শীতে করোনা নিয়ে সতর্ক থাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিত: অক্টোবর ২৮, ২০২১; সময়: ১১:০৪ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : শীতের আগমনে দেশে আবারো করোনাভাইরাস যাতে মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে না পারে সেজন্য সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি সতর্ক করে দিয়ে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ এবং মাস্ক ব্যবহারের কথা স্মরণ করিয়ে দেন। শীত মৌসুমে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ গুদামের জন্য বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকের (বিএবি) দেওয়া ২৬ লাখ ৪৫ হাজার কম্বল গ্রহণকালে তিনি এ কথা বলেন।

বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে তার মুখ্যসচিব ড. আহমদ কায়কাউস ৩৭টি বেসরকারি ব্যাংকের কাছ থেকে এই কম্বল গ্রহণ করেন। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি অংশগ্রহণ করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, শীতকাল এলেই একটু ঠাণ্ডা লাগে, সর্দি, কাশি হয়। আর এটা হলেই এই করোনাভাইরাসটা আমাদের সাইনাসে গিয়ে বাসা বানাতে পারে। কাজেই, সেইদিকে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। খাদ্য তালিকায় যাতে ভিটামিন সি থাকে এবং যাতে ঠাণ্ডা না লাগে সেদিকে নজর দিতে হবে। তিনি এ সময় মৌসুমি ফলমূল, শাকসবজি এবং তরিতরকারি বেশি করে খাবার পরামর্শ দেন।

তিনি বলেন, টিকা দেওয়ার পরে কারো করোনা হলেও তার হয়তো ক্ষতি বেশি হবে না। তবে, তার থেকে রোগটি ছড়াতে পারে। তাই মাস্ক ব্যবহার করতেই হবে। তিনি এ ব্যাপারে প্রচার-প্রচারণার ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, একটু সতর্ক হলে করোনাভাইরাস আর বাংলাদেশের মানুষের কোন ক্ষতি করতে পারবে না।

তিনি এ সময় ব্যাংক কর্মকর্তাদের মাধ্যমে সমগ্র দেশের জনগণের উদ্দেশ্যে বলেন, করোনাভাইরাসকে আমরা নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছি। টিকা সংগ্রহ করে সারাদেশে টিকদান অব্যাহত রয়েছে এবং বৃহস্পতিবারও সারাদেশে ৮০ লাখ টিকাদানের কার্যক্রম চলেছে।

ছাত্র সমাজ এবং স্কুলের শিক্ষার্থীদের টিকা দেয়ার প্রস্তুতি তাঁর সরকারের রয়েছে। কেউ বাদ যাবে না, নীতিমালা অনুযায়ী যারা টিকা পাবার যোগ্য সবাই টিকা পাবে। আগামী বছরের মাঝামাঝি সময় নাগাদ আমরা সকল মানুষকেই টিকা দিতে সক্ষম হব।

সরকারপ্রধান বলেন, তার সরকার ক্ষমতায় আসার পর বিভিন্ন ব্যাংক, বীমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানকে বেসরকারি খাতে উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়। যাতে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি খাত আরো শক্তিশালী হয় এবং দেশের মানুষের আরো কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়।

মুখ্যসচিব আহমদ কায়কাউস প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিলের জন্য ১০ লাখ টাকার চেকও গ্রহণ করেন। বিএবি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মজুমদার বিভিন্ন ব্যাংক চেয়ারম্যানদের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে