ইন্টারনেট ডাটা ও টকটাইমের মারপ্যাঁচ বন্ধের আহ্বান

প্রকাশিত: জুলাই ৩১, ২০২১; সময়: ৮:৪৫ pm |
খবর > জাতীয়

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : গ্রাহকের অতিরিক্ত ব্যয় কমাতে মুঠোফোনভিত্তিক ইন্টারনেট ডাটা ও টকটাইমের মারপ্যাঁচ বন্ধের আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ মুঠোফোন গ্রাহক অ্যাসোসিয়েশন।

শনিবার (৩০ জুলাই) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে সংগঠনের সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ বলেছেন, ২০০৮ সালে ডিজিটাল বাংলাদেশ ঘোষণার সময় ব্যান্ডউইথের ব্যবহার ছিল মাত্র ৮০০ জিবিপিএস। এখন ব্যান্ডউইথের ব্যবহার হয় ২৪০০ জিবিপিএস। সে সময় ব্যান্ডউইথের দাম ছিল ১ লাখ ২৫ হাজার টাকা। বর্তমানে সরকার তা কমিয়ে এনেছে মাত্র ২৮০ টাকায়। ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১ কোটি ৫ হাজার।

মুঠোফোনভিত্তিক ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১১ কোটি ৬১ লাখ ৩০ হাজার। ব্রডব্যান্ডের ব্যান্ডউইথ ব্যবহার হচ্ছে সর্বোচ্চ ১ হাজার ৪০০ জিবিপিএস। প্রায় ১২ কোটি মুঠোফোনভিত্তিক ইন্টারনেট ব্যবহারকারী ব্যবহার করে মাত্র ৯০০ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ। এখানে সহজেই অনুমেয় যে সর্বাধিক গ্রাহকদের সেবা দিতে এত কম পরিমাণ ব্যান্ডউইথ ব্যবহার করার পরও মোবাইল ফোন অপারেটরদের রাজস্ব সংগ্রহের পরিমাণ এত বেশি কেন?

তিনি আরও বলেন, এ নিয়ে গ্রাহকদের ভিতর ক্ষোভ জন্মেছে, যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই প্রকাশ করছেন। টাকা দিয়ে ডাটা বা টকটাইম কেনার পর নির্দিষ্ট মেয়াদ শেষ হওয়ার পর অব্যবহৃত ডাটা ও টকটাইম পরবর্তী রিচার্জের সময় পাওয়া যাচ্ছে না কেন?

মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, যেহেতু নিয়ন্ত্রক কমিশন ইন্টারনেটের মূল্য নির্ধারণের জন্য কস্ট মডেলিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তাই আমরা করোনা মহামারিতে দাম না কমিয়ে ইন্টারনেট ডাটা ও টকটাইমের মারপ্যাঁচ বন্ধ করার আহ্বান জানাচ্ছি। অর্থাৎ আমাদের দাবি অবহেলিত ডাটা টকটাইম পরবর্তী রিচার্জের সময় যুক্ত করা হোক।

  • 10
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে