২৪ ঘণ্টার মধ্যে ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধের ঘোষণা প্রত্যাহারের দাবি

প্রকাশিত: জুন ২৭, ২০২১; সময়: ১:৫৯ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধের সরকারি ঘোষণা প্রত্যাহারের দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে রিকশাচালকদের সমাবেশ। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধের সরকারি ঘোষণা প্রত্যাহারের দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে রিকশাচালকদের সমাবেশ। ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধ করে দেওয়ার সরকারি নির্দেশের প্রতিবাদ জানিয়েছে রিকশা-ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন। আজ রোববার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক সমাবেশে এ প্রতিবাদ জানানো হয়। সমাবেশ থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধের সরকারি ঘোষণা প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়। তা না হলে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন শহর অচল করে দেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন শ্রমিকনেতারা।
বিজ্ঞাপন

সমাবেশে রিকশা-ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের উপদেষ্টা ও বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আবদুল্লাহ কাফি বলেন, এ দেশে মুক্তিযুদ্ধসহ সব লড়াই-সংগ্রামে শ্রমিকেরা অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন। ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধ ঘোষণার মধ্য দিয়ে তাঁদের পেটে লাথি মারা হয়েছে। আবদুল্লাহ কাফি আরও বলেন, ‘রিকশার ব্যাটারি চীন থেকে আমদানি করা হয়েছে। যাঁরা আমদানি করেছেন, তাঁদের ধরা হচ্ছে না কেন? তিনি বলেন, আজ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘেরাওয়ের মাধ্যমে আমরা সেমিফাইনাল খেলব। এরপর দাবি না মানা হলে ফাইনাল খেলা হবে।’

সমাবেশে রিকশা-ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের উপদেষ্টা হজরত আলী বলেন, ‘শরীরের রক্ত পানি করে রিকশাচালকেরা রিকশা চালান। তাঁদের উদ্দেশ্য শুধু দুটো ডাল–ভাত। রিকশাচালকেরা কেউ দুর্নীতি কইরা কানাডায় বাড়ি বানায় নাই। বাড়ি বানাইছে লুটেরারা।’ শ্রমিক নেতা মোহাম্মদ আলী বলেন, এই করোনাকালে মানুষ না খেয়ে মরছে অনেক জায়গায়। এই সময়ে রিকশাচালকদের পেটে লাথি মারার বন্দোবস্ত করা হয়েছে। যারা এ কাজ করেছে তারা মানুষের মধ্যে পড়ে না। সমাবেশের পর একটি মিছিল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দিকে যায়। সেখানে পুলিশ তাদের বাধা দেয়। এরপর রিকশা ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের পাঁচজন প্রতিনিধি মন্ত্রণালয়ে স্মারকলিপি দিতে যান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে