করোনায় দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মৃত্যুর মাস জুন

প্রকাশিত: জুন ২৬, ২০২১; সময়: ৩:২৫ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ২০২০ সালের ১৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর খবর পাওয়ার পর ওই বছরের জুলাই মাসে মোট এক হাজার ২৬৪ জনের মৃত্যুর রেকর্ড হয়। তবে ২০২১ সালের এপ্রিলে মৃত্যুর সংখ্যা ছাড়িয়ে গেছে সেই পরিসংখ্যান। ওই মাসে মারা যায় দুই হাজার ৪০৪ জন। এরপর চলতি জুন মাসের ২৫ দিনেই মোট এক হাজার ৩৫৭ জনের মৃত্যুর খবর রেকর্ড হয়েছে। যা এখন পর্যন্ত দ্বিতীয় সর্বোচ্চ।

এদিকে, গতকাল শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা সংক্রমণ নিয়ে ১০৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা একদিনে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মৃত্যুরও পরিসংখ্যান। এখন পর্যন্ত দেশে ১৩ হাজার ৯৭৬ জন মারা গেছেন এই ভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ডা. এ এস এম আলমগীর বলছেন, দেশে বর্তমানে কোভিড-১৯ সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি চলছে। সংক্রমণ বাড়লেই বয়স্ক মানুষদের মধ্যে সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কা বৃদ্ধি পাবে। যারা অন্যান্য জটিল রোগে আক্রান্ত, তাদের সংক্রমিত হওয়ার আশঙ্কা বাড়বে। আর বয়স্ক এবং এ ধরনের জটিল রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিরা করোনায় আক্রান্ত হলে বরং মৃত্যুর হার আরো বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকবে। তাই করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নিতে হবে।

এদিকে, সোমবার থেকে সারাদেশে সাতদিনের কঠোর লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। এ সময় জরুরি পরিষেবা ছাড়া সরকারি-বেসরকারি সব অফিস বন্ধ থাকবে। শুক্রবার সন্ধ্যায় তথ্য অধিদফতরের প্রধান তথ্য অফিসার সুরথ কুমার সরকার এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

কঠোর লকডাউনে জরুরি কারণ ছাড়া বাড়ির বাইরে কেউ বের হতে পারবেন না। পণ্যবাহী যান ব্যতীত সব প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। তবে অ্যাম্বুলেন্স ও চিকিৎসা সংক্রান্ত কাজে শুধু যানবাহন চলাচল করতে পারবে। এ বিষয়ে আজ শনিবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে বিস্তারিত আদেশ জারি করা হতে পারে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে