কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ, ফাঁসছেন সওজের সাবেক প্রধান প্রকৌশলী

প্রকাশিত: জুন ১৭, ২০২১; সময়: ৮:০৯ pm |
খবর > জাতীয়

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : সোয়া কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে সড়ক ও জনপথ অধিদফতরের সাবেক প্রধান প্রকৌশলী মো. ফিরোজ ইকবাল ও তার স্ত্রী ফাহমিদা নিলুফারের বিরুদ্ধে পৃথক দুই মামলায় চার্জশিট অনুমোদন দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বুধবার (১৬ জুন) দুদকের প্রধান কার্যালয়ে কমিশনের পক্ষ থেকে চার্জশিট অনুমোদন দেওয়া হয়। সংস্থাটির তদন্ত কর্মকর্তা উপপরিচালক শাহীন আরা মমতাজ শিগগিরই চার্জশিট দুটি আদালতে দাখিল করবেন। দুদকের জনসংযোগ দফতর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

২০১৯ সালের ৩ ডিসেম্বর দুদকের ঢাকার সমন্বিত জেলা কার্যালয় ১-এ তাদের বিরুদ্ধে মামলা দুটি দায়ের করা হয়েছিল।

তদন্ত প্রতিবেদন সূত্রে জানা যায়, সড়ক ও জনপথ অধিদফতরের সাবেক প্রধান প্রকৌশলী ফিরোজ ইকবাল ক্ষমতার অপব্যবহার করে দুর্নীতির আশ্রয় নিয়ে নিজ নামে ৫১ লাখ ১৭ হাজার ১৭২ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জন করেছেন। এর মধ্যে ৩৩ লাখ ৯৮ হাজার টাকার সম্পদের তথ্য গোপন করেছেন তিনি। এছাড়া তার বিভিন্ন ব্যাংক অ্যাকাউন্টে বেতন-ভাতা বহির্ভূত তিন কোটি ২৯ লাখ ১৪ হাজার ৭৬০ টাকা সন্দেহজনক লেনদেনের প্রমাণ মিলেছে।

অন্যদিকে, তার স্ত্রী ফাহমিদা নিলুফার একজন গৃহিণী। তার নামে ৭২ লাখ ৭৫ হাজার ৮৩৩ টাকার অবৈধ সম্পদের খোঁজ পান তদন্ত কর্মকর্তা।

তদন্তে দেখা গেছে, স্বামী অনৈতিক প্রক্রিয়ায় আয়কে বৈধ করার কৌশল হিসেবে স্ত্রীর নাম ব্যবহার করেছেন। যে কারণে মামলায় ও চার্জশিটে স্ত্রী ফাহমিদা নিলুফারকে এক নম্বর আসামি করার পাশাপাশি স্বামী ফিরোজ ইকবালকে ওই মামলায় সহযোগী আসামি করা হয়েছে।

এ ছাড়া ফাহমিদার নামে বিভিন্ন ব্যাংক হিসাবে পাঁচ কোটি ১৮ লাখ ৬০ হাজার ২৯৪ টাকার লেনদেনের অস্বাভাবিক তথ্য মিলেছে। যে কারণে দুই চার্জশিটেই দুদক আইন ২০০৪ এর ২৬ (২) ও ২৭ (১) ধারার পাশাপাশি মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন ২০১২-এর ৪ (২) (৩) ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে