দেশে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের আক্রমণ ঠেকাতে চিকিৎসক ও রোগীর সচেতনতা গুরুত্বপূর্ণ

প্রকাশিত: জুন ১৬, ২০২১; সময়: ৯:০৯ pm |
খবর > জাতীয়

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের আক্রমণ ঠেকাতে চিকিৎসক ও রোগীর সচেতনতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ এমনটাই বলছেন বিশেষজ্ঞরা। তাদের মতে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাওয়া ঠেকাতে পারলে মরণঘাতী এ রোগ থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব।

করোনা চিকিৎসায় বেশি মাত্রায় ওষুধ না ব্যবহারের পরামর্শও দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। তারা তাগিদ দিয়েছেন, রোগ পরবর্তী সময়ে সুষম খাবার গ্রহণে। ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে নতুন করে মৃত্যুর খবর না পাওয়া গেলেও ভাবনায় পড়েছে অনেকেই। সরকারি হিসেবে দেশে এ পর্যন্ত করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৮ লাখ ৩০ হাজার। চিকিৎসকরা বলছেন, কোভিডের পর শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাওয়ার সুযোগ নেয় মিউকরমাইকোসিস।

ডায়াবেটিস আক্রান্তদের এমনিতেই প্রতিরোধ ক্ষমতা কম। তাই করোনা চিকিৎসায় ওষুধ ব্যবহারে আরও বেশি সজাগ থাকার তাগিদ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। অতিরিক্ত স্টেরয়েড বা অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার না করার পরামর্শও দিয়েছেন তারা।

ডিএমসির ভাইরোলজি বিভাগের অধ্যাপক ডা. শাহানা বানু বলেন, করোনা থেকে সেরে উঠলেও ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের ব্যাপারে সজাগ থাকা জরুরি। শরীরের বিশেষ যত্নই ঠেকাতে পারে এমন ছত্রাকের আক্রমণ।

ব্ল্যাক ফাঙ্গাস ধরা পড়ে প্রায় একশো বছর আগে। স্যাঁতস্যাঁতে ও পচনশীল পরিবেশে থাকে এ ছত্রাকটি। অতি দুর্বলতার সুযোগে আক্রমণ করে এই ছত্রাক।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে