বায়তুল মোকাররমে ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত: মে ১৪, ২০২১; সময়: ১০:৪৫ am |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : আজ পবিত্র ঈদুল ফিতর। জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে ঈদুল ফিতরের প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব এবং করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির জন্য অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি মেনেই শুক্রবার (১৪ মে) সকাল ৭টায় প্রধান এ জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

প্রথম জামাতে ইমামতি করেন বায়তুল মোকাররমের সিনিয়র পেশ ইমাম হাফেজ মুফতি মাওলানা মিজানুর রহমান। মুকাব্বির হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন মসজিদের মুয়াজ্জিন হাফেজ কারি কাজী মাসুদুর রহমান।

জামায়াত শেষে খুতবা পেশ করা হয়। এরপর অনুষ্ঠিত হয় দোয়া ও মোনাজাত। মোনাজাতে দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনা করা হয়। পাশাপাশি দোয়া করা হয় সম্প্রতি বৈশ্বিক করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতদের জন্য। এছাড়া মোনাজাতে সব উম্মতে মোহাম্মদির গুনাহ মাফ চাওয়া হয়। সব মৃত ব্যক্তির কবরের আজাব মাফ চাওয়া হয়। যে কোনো বিপদ থেকে দেশকে হেফাজতের জন্য প্রার্থনা করা হয় মোনাজাতে।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ জামাত, জামাত শেষে কোলাকুলি ও হাত মেলাতে মানা থাকায় মুসল্লিরা এসব থেকে বিরত রয়েছেন। নামাজ শেষে কাউকেই দেখা যায়নি হাত মেলাতে বা কোলাকুলি করতে। ফলে অনেকেই একটু কষ্ট মনে নিয়েই ফিরেছেন ঘরে।

তারা জানান, ঈদের নামাজের পর প্রধান আনন্দ কোলাকুলিতেই। তবে নিজেদের নিরাপত্তার স্বার্থেই এবার বিরত থাকছেন সেসব থেকে।

সকালে জাতীয় মসজিদে প্রধান ঈদ জামাতে নামাজ আদায় করার জন্য বিভিন্ন স্থান থেকে মুসল্লিরা আসেন। সকালের আবহাওয়া ভালো থাকায় এখানে আসতে তাদের কোনো সমস্যা হয়নি বলেই জানিয়েছেন তারা।

বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে পর্যায়ক্রমে আরও চারটি ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে। দ্বিতীয় জামাত সকাল ৮টায়, তৃতীয় জামাত সকাল ৯টায়, চতুর্থ জামায়াত সকাল ১০টায় এবং পঞ্চম ও সর্বশেষ জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে।

এবার করোনা মোকাবিলায় ও সংক্রমণের বিস্তার রোধে সরকারের নির্দেশনায় খোলা মাঠে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হচ্ছে না। ঈদ জামাত হচ্ছে মসজিদের ভেতরে শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে