করোনার সুনামিতে ১৬ দিনেই লক্ষাধিক শনাক্ত

প্রকাশিত: এপ্রিল ১৬, ২০২১; সময়: ৮:২৯ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত চার হাজার ৪১৭ জন রোগী শনাক্ত হয়েছেন বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। এনিয়ে সরকারি হিসেবে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন সাত লাখ ১১ হাজার ৭৭৯ জন।

এছাড়া চলতি মাসের প্রথম ১৬ দিনে স্বাস্থ্য অধিদফতরের তথ্যমতে শনাক্ত হয়েছেন এক লাখ ৪৮৪ জন। যা কিনা গত পুরো মার্চ মাসের চেয়ে বেশি। গত মার্চ মাসে শনাক্ত হয়েছেন মোট ৬৫ হাজার ৭৯ জন।

দেশে করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ চলছে। চিকিৎসকরা একে দ্বিতীয় ঢেউ না বলে করোনার সুনামি বলে অ্যাখ্যায়িত করছেন। তারা বলছেন, গত বছরের চেয়ে এবারের সংক্রমণ তীব্র। চিকিৎসকদের এই অভিমতের সত্যতা মেলে চলতি মাসের ১৬ দিনে রোগী শনাক্তের সংখ্যার ভিত্তিতেই।

দেশে গত বছরের ৮ মার্চ প্রথম তিনজন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হবার কথা জানায় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। তার ঠিক ১০ দিন পর প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগীর মৃত্যুর কথা জানায় প্রতিষ্ঠানটি। মহামারি শুরুর পর থেকে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১০১ জনের মৃত্যুর কথা জানানো হলো।

গত বছর মহামারি শুরুর পর থেকে মে মাসের মাঝামাঝি থেকে রোগী সংক্রমণ বাড়তে শুরু করে। আগস্টের তৃতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত শনাক্তের হার ২০ শতাংশের ওপরে ছিল। এরপর থেকে শনাক্তের হার কমতে শুরু করে। জুন থেকে আগস্ট—এই তিন মাস করোনার সংক্রমণ ছিল ঊর্ধ্বমুখী।

গত বছরে জুন মাসে সর্বোচ্চ রোগী শনাক্ত হয়েছিল ৯৮ হাজার ৩৩০ জন, শনাক্তের হার ছিল ২১ দশমিক ৪৯ শতাংশ। আর চলতি মাসের ১৬ দিনেই গত বছরের মাসভিত্তিক রোগী সংক্রমণের সে সর্বোচ্চ সংখ্যাকে পেছনে ফেলেছে। ১৬ দিনে রোগী শনাক্ত হয়েছেন এক লাখ ৪৮৪ জন।

গত বছরের মার্চে দেশে করোনা রোগী শনাক্ত হন ৫১ জন, এপ্রিলে সাত হাজার ৬১৬ জন, মে মাসে ৩৯ হাজার ৪৮৬ জন, জুনে ৯৮ হাজার ৩৩০ জন, জুলাইতে ৯২ হাজার ১৭৮ জন, আগস্টে ৭৫ হাজার ৩৩৫ জন, সেপ্টেম্বরে ৫০ হাজার ৪৮৩ জন, অক্টোবরে ৪৪ হাজার ২০৫ জন, নভেম্বরে ৫৭ হাজার ২৪৮ জন, ডিসেম্বরে ৪৮ হাজার ৫৭৮ জন। আর চলতি বছরের জানুয়ারিতে ২১ হাজার ৬২৯ জন, ফেব্রুয়ারিতে ১১ হাজার ৭৭ জন, মার্চে ৬৫ হাজার ৭৯ জন আর আজ (১৬ এপ্রিল) পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছেন ১ লাখ ৪৮৪ জন।

  • 36
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে