‘ইয়েলো জোনে’ ঢাকার যে ৩৮ এলাকা

প্রকাশিত: জুন ৭, ২০২০; সময়: ১১:১৬ am |
খবর > জাতীয়

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : প্রাণঘাতী করোনার প্রাদুর্ভাব কমাতে দেশে এলাকাভিত্তিক লকডাউনের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। আক্রান্তের আধিক্য বিবেচনায় রেড জোন, ইয়েলো জোন এবং গ্রিন জোনে চিহ্নিত করা হচ্ছে। আর এটা আজ থেকেই বাস্তবায়ন করা হবে। এতে করে ঢাকাসহ সারাদেশে আগের থেকে আরো কঠোর হবে স্বাস্থ্যবিধি ও আইনি পদক্ষেপ।

সরকারের শীর্ষ পর্যায় থেকে এ কথা জানানোর পর স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে ঢাকার ৩৮টি এলাকাকে আংশিক লকডাউন (ইয়েলো জোন বিবেচিত) হিসেবে দেখানো হচ্ছে। একইসঙ্গে লকডাউন নয় (গ্রিন জোন বিবেচিত) বলে দেখানো হচ্ছে ১১টি এলাকাকে। তবে এখন পর্যন্ত পুরোপুরি লকডাউন (রেড জোন বিবেচিত) হিসেবে কোনো এলাকাকে দেখানো হচ্ছে না।

মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে শনিবার (৬ জুন) সর্বশেষ আপডেট করা তালিকা অনুসারে আংশিক লকডাউন বলে চিহ্নিত ৩৮টি এলাকা বাংলাদেশ জার্নাল পাঠকদের জন্য নিচে তুলে ধরা হল-

আদাবর, থানা, উত্তরা পূর্ব, উত্তরা পশ্চিম, ওয়ারী, কদমতলী, কলাবাগান, কাফরুল, কামরাঙ্গীরচর, কোতয়ালি, খিলক্ষেত, গুলশান, গেন্ডারিয়া, চকবাজার, ডেমরা, তেজগাঁও, তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল, দক্ষিণখান, দারুসসালাম, ধানমন্ডি, নিউমার্কেট, পল্টন মডেল, পল্লবী, বংশাল, বাড্ডা, বিমানবন্দর, ভাটারা, মিরপুর মডেল, মুগদা, মোহাম্মদপুর, যাত্রাবাড়ী, রমনা মডেল, লালবাগ, শাহআলী, শাহজাহানপুর, শেরেবাংলা নগর, সবুজবাগ, সুত্রাপুর ও হাজারীবাগ থানা এলাকা।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুসারে, ঢাকা জেলায় ২০ হাজার ৭০৭ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকা মহানগরীতে আক্রান্ত ১৯ হাজার ৩২৭ জন। নগরীর মধ্যে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি করোনা সংক্রমিত রোগী পাওয়া গেছে মিরপুর এলাকায়। সেখানে ৯৬৯ করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন।

এরপর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে মহাখালীতে। সেখানে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ৪৫৭ জন। আক্রান্তের তালিকায় এর পরে আছে উত্তরা, মুগদা ও মোহাম্মদপুর। এ তিন এলাকায় আক্রান্তের সংখ্যা যথাক্রমে ৪৩৩, ৪২৮ ও ৩৯৪।

বাকি যেসব এলাকায় সংক্রমিত রোগী বেশি, সেসব এলাকা হলো- যাত্রাবাড়ী (৩৮৭ জন), কাকরাইল (৩০০ জন), ধানমন্ডি (২৯৪ জন), মগবাজার (২৫৫ জন), তেজগাঁও (২৫১ জন), রাজারবাগ (২২১ জন), খিলগাঁও (২১৯ জন), লালবাগ (২০৬ জন), রামপুরা (১৯৭ জন), বাড্ডা (১৯৫ জন), মালিবাগ (১৬৪ জন), গুলশান (১৬৩ জন), বাবুবাজার (১৬২ জন), গেন্ডারিয়া (১৪২ জন), ওয়ারী (১২৪ জন), বাসাবো (১২২ জন), বংশাল (১০৯ জন) এবং আগারগাঁও (১০৮ জন)।

ঢাকার বাইরে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে চট্টগ্রাম, নারায়ণগঞ্জ, কুমিল্লা, গাজীপুর ও কক্সবাজারে। আইইডিসিআরের সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুসারে, এ পাঁচ জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা যথাক্রমে ২৮৭৫, ২৪৬০, ১১৭৩, ১১৫০ ও ৯৬৯। এসব জেলায়ও সংক্রমণের শীর্ষ এলাকা ধরে চিহ্নিত হতে পারে রেড জোন।

  • 34
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • এমপিদের তামাকের কর কাঠামোর পরিবর্তনের দাবিতে অর্থমন্ত্রীকে চিঠি
  • সকলকে সাথে নিয়ে জনমুখী পুলিশ গঠনে কাজ করছেন আইজিপি
  • দেশে আরও ৩৮ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৪০১৯
  • ভ্যাকসিনের প্রাথমিক পর্যায় সম্পন্ন : বায়োটেকের দাবি
  • ‘স্বাস্থ্য চেকআপের’ জন্য লন্ডন গেলেন অর্থমন্ত্রী
  • ঔষধ প্রশাসনের অনুমোদন পেল মিনিস্টার সার্জিক্যাল মাস্ক
  • ট্রান্সকম গ্রুপের চেয়ারম্যান লতিফুর রহমান আর নেই
  • দেশে আরও ৪১ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩৭৭৫ (ভিডিওসহ)
  • দোকান-শপিংমল খোলা রাখার সময় বৃদ্ধি
  • হলি আর্টিজান হামলার ৪ বছর
  • গড় আয়ু বেড়ে ৭২.৬ বছর
  • দেশে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩৬৮২ (ভিডিও)
  • বাজেট পাস
  • উদ্ধার হলো ডুবে যাওয়া লঞ্চ মর্নিং বার্ড
  • বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবির ঘটনায় নৌপুলিশের মামলা
  • উপরে