ডায়াবেটিস রোগীরা কি রোজ আম খেতে পারবেন

প্রকাশিত: মে ৯, ২০২২; সময়: ১১:৩৫ am |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : গ্রীষ্মকালীন ফল আম। আর কিছুদিন পরই বাজারে পাওয়া যাবে হলুদ-কমলা রঙা পাকা ফলটি। গরমে শরীরবৃত্তীয় কাজকর্ম ঠিক রাখতে যতটা ভিটামিন সি প্রয়োজন তার যোগান মেলায় আম। তাই এই ফল খেলে ওজন খুব একটা বাড়ার সম্ভাবনা নেই। কিন্তু এই ফলটিতে রয়েছে প্রচুর ক্যালোরি। তাই প্রশ্ন জাগে, আম কি দেহের সুগার লেভেল বাড়াতে পারে? ডায়াবেটিস রোগীরা কি নিয়মিত আম খেতে পারবেন?

ডায়েটিশিয়ান লোচন অরোরার মতে, সঠিক উপায়ে আম না খেলে রক্তে শর্করার পরিমাণ বেড়ে যেতে পারে। কেবল ডায়াবেটিস রোগী নয়, যারা ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে চান তাদেরও বিশেষ পরামর্শ মেনে চলা উচিত। বিশেষ উপায় মেনে আম খেলে তা শর্করা বেশি বাড়াবে না। অন্যদিকে আমের পুষ্টিও পাওয়া যাবে।

যেভাবে আম খাবেন

প্রথমে আম ধুয়ে ফেলুন। খোসা ছাড়িয়ে টুকরো টুকরো করে কেটে নিন। এরপর পানিতে টুকরোগুলো আধা ঘণ্টা থেকে ১ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন। তারপর খান। আমের টুকরোগুলো সরাসরি খেতে পারেন। ম্যাঙ্গো শেক বানিয়েও খেতে পারেন। এর সঙ্গে বাড়তি চিনি যোগ করবেন না।

দৈনিক কতটুকু আম খেতে পারবেন

বিশেষজ্ঞদের মতে, দৈনিক আধা কাপ আম খেতে পারবেন ডায়াবেটিস রোগীরা। এতে শরীরের কোনো ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা থাকে না। এই পরিমাণ আম খেলে তা প্রাকৃতিক রেচক হিসেবে কাজ করবে। হজমের সমস্যারও সমাধান হবে।

বাদামের সঙ্গে আম

সুগার লেভেল বা শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে চাইলে আমের সঙ্গে কিছু বাদাম মিশিয়ে খেতে পারেন। ম্যাঙ্গো শেক বানালে তার সঙ্গে বাদাম দিন। আম আর বাদামের মিশ্রণ শর্করার মাত্রা বাড়াবে না। ডায়াবেটিস রোগীরা এভাবে আম খেতে পারেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপে