ত্বকের যত্নে টমেটো

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১১, ২০২১; সময়: ১:৫৩ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : মসৃণ কোমল ত্বকের জন্য টমেটো অত্যন্ত কার্যকরী। মুখ পরিষ্কার করা থেকে শুরু করে, ট্যান দূর করা এবং ব্রণর সমস্যা দূর করতে টমেটো একাই একশো! টমেটোতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ এবং সি আছে। ভিটামিন এ এবং সি ত্বককে ভেতর থেকে সুস্থ আর তরতাজা করে তোলে।

ত্বকে অনেকেরই ব্রণ, কালো দাগ ছোপ থাকে। এই সমস্যার সমাধানের জন্য অবশ্যই ব্যবহার করা যায় টমেটো মাস্ক। এই টমেটো মাস্ক নিয়মিত ব্যবহার করলে মুখের রোমকূপের ছিদ্রগুলো ছোট দেখায়। ফলে মুখ একটি মসৃণ ভাব ফিরে পায়। ফলে মেকআপ করলেও তা খুব সুন্দর মসৃণ দেখায়। শুধু তাই নয়। অর্থাৎ যে শুধু মেকআপ ভালো বসে তাই নয়। আসলে টমেটো রসের মাস্কের দরুন মুখের অযাচিত দাগ, ছোপ, কালো ভাব, ট্যান, রুক্ষতা, ব্রণ ইত্যাদি এক দম চলে যায়।

টমেটো মাস্ক তৈরি করে নিতে লাগবে- দুই টেবিল চামচ টমেটোর রস। এক টেবিল চামচ মুলতানি মাটি এবং এক চা চামচ মধু। সঙ্গে এক চা চামচ কাঁচা দুধ দিতে পারলে ভালো হয়।

টমেটো ভালো করে চিপে তার রস বের করে নিতে হবে। রসটি একটি পরিষ্কার পাতলা সুতির কাপড়ে ছেঁকে নিতে পারলে ভালো হয়। এ বার বের করা রস একটি পরিষ্কার কাচের পাত্রে নিতে হবে। তাতে মুলতানি মাটি, কাঁচা দুধ এবং মধু মেশাতে হবে। তা ভালো করে মিশে গেলে একটি পেস্টের মতো মিশ্রণ তৈরি হবে। এটিই হল টমেটো রসের মাস্কের জন্য তৈরি প্যাক।

প্রথমে মুখ ভালো করে পরিষ্কার করে নিতে হবে। যাতে টমেটো ও সঙ্গের সমস্ত উপাদানের গুণাগুণ ত্বকে প্রবেশ করতে পারে। তার জন্য প্রথমে গোলাপ জলে তুলো ভিজিয়ে মুখটা পরিষ্কার করে নিতে হবে। অথবা হালকা গরম জলে তুলো ভিজিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নেওয়া যেতে পারে। অথবা ফেস ওয়াশ দিয়েও মুখ ধুয়ে নেওয়া যেতে পারে। পেস্ট শুকিয়ে গেলে হালকা গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।

যাদের ফেস মাস্ক ব্যবহার করার সময়ের অভাব তারাও টমেটো রসের সুফল পেতে পারেন। তবে অন্য পদ্ধতিতে। সে ক্ষেত্রে টমেটোর রস একই পদ্ধতিতে বের করে নিতে হবে। এ বার তা সরাসরি তুলোয় করে নিয়ে মুখে লাগিয়ে নিতে হবে। কিছু মেশানোর দরকার নেই। তবে তার আগে অবশ্যই কোনো একটি পদ্ধতিতে মুখ পরিষ্কার করে নিতে হবে। রস লাগানোর পর রসটি মুখে শুকিয়ে যাওয়ার জন্য কিছুটা সময় অবশ্যই অপেক্ষা করতে হবে। তার জন্য কম করে ১০ থেকে ১৫ মিনিট সময় হাতে রাখতে হবে। তার পর মুখ শুকিয়ে গেলে হালকা গরম জলে মুখ ধুয়ে নিতে হবে। তাতেও উজ্জ্বল ভাব চোখে পড়বে।

যদি আপনার ত্বক তৈলাক্ত হয় এবং ত্বকের তেলতেলে ভাব দূর করতে আপনি অনেক চেষ্টা করছেন তাহলে টমেটো আপনাকে এই মুক্তি দেবে দ্রুত। একটা টমেটোর রস এবং এর সাথে শসার রস যোগ করুন। তুলোয় করে রোজ মাখুন।

মিশ্র ত্বকের জন্য টমেটো ও অ্যাভোক্যাডো-এর মিশ্রণ খুব ভালো কাজ করে। কারণ টমেটো অ্যাসট্রিনজেন্ট হিসেবে কাজ করে যা ব্ল্যাক হেডস ও ত্বকের তেল কন্ট্রোল এজেন্ট হিসেবে কাজ করে আর অ্যাভোক্যাডো ত্বকে অ্যান্টিসেপ্টিক ও ময়েশ্চারাইজিং এর প্রভাব তৈরী করে।

মনে রাখতে হবে যে টমেটোর মধ্যে অ্যাসিড আছে। তাই তা সকলের নাও সহ্য হতে পারে। তাই বিভিন্ন ত্বকে এই রস ব্যবহারের আগে অবশ্যই প্যাচ টেস্ট করে নিতে হবে। সে ক্ষেত্রে কানের পেছনে বা হাতে এই টেস্ট করা যেতে পারে। কোনো রকম সমস্যা হলে রস মুখের ত্বকে না ব্যবহার করাই ভালো। আর কোনো সমস্যা না হলে অবশ্যই পদ্ধতিগুলি মেনে চলা যেতে পারে।

  • 6
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে