ইদ থেকে সরে এল ইদের ছবি

প্রকাশিত: জুলাই ১৪, ২০২১; সময়: ১১:৫৩ am |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : শান বড় বাজেটের ছবি। ইদের বাজার মাথায় রেখে তৈরি করা হয়েছে। তারপর তিনটি ইদ চলে গেছে, ছবিটি মুক্তি দিতে পারেননি প্রযোজক আজাদ খান। আগামী ইদেও যে মুক্তি দেওয়া যাবে, তেমন কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। সিয়াম ও পূজা চেরি অভিনীত এম এ রাহিমের ছবিটির মুক্তি নিয়ে এখন তাই বিকল্প কিছু ভাবছেন প্রযোজক। আজাদ খান বলেন, ‘ইদ ছাড়া এই ছবির বিনিয়োগ উঠে আসবে না। দুই বছর ধরে অপেক্ষা করলাম। এখন মনে হচ্ছে ছবিটি নিয়ে আর নির্দিষ্ট গন্তব্যে থাকতে পারছি না। অনেক সময় পেরিয়ে গেছে। আর কত দিন এত বড় বিনিয়োগ আটকে রাখব। এখন ভাবছি অবস্থা স্বাভাবিক হলে বছরের যেকোনো সময়ই মুক্তি দেব।’

শুধু শানই নয়, করোনার কারণে আটকে আছে ছয়টি ছবি। দুই বছর ধরে ইদ উৎসবে মুক্তির তালিকায় থাকা এই ছবিগুলো হলো মিশন এক্সট্রিম, মিশন এক্সট্রিম ২, বিদ্রোহী, বিক্ষোভ, অপারেশন সুন্দরবন, অন্তরাত্মা। এসব ছবির পরিচালক ও প্রযোজকেরাও ঈদ উৎসব থেকে ছবি সরিয়ে নেওয়ার কথা বলেছেন। তাঁদের কথা, আর ইদের জন্য অপেক্ষা নয়, পরিবেশ তৈরি হলে বছরের যেকোনো সময়ই মুক্তি দেবেন এসব ছবি।

মিশন এক্সট্রিম ছবির প্রযোজক ও অন্যতম পরিচালক সানি সানোয়ার জানালেন, আগামী ইদে মুক্তি দিচ্ছেন না তাঁর ছবি। সানি বলেন, ‘সংক্রমণ বাড়ছে। মনে হচ্ছে গেল ইদের চেয়েও পরিস্থিতি খারাপ হবে এবার। ইদের জন্য আর অপেক্ষা করব না। ইদের পর সুবিধামতো সময়েই মুক্তি দেব। ছবি মুক্তির আগে কমপক্ষে এক মাস প্রচার-প্রচারণা লাগবে।’ মিশন এক্সট্রিম ও মিশন এক্সট্রিম ২—এ দুই ছবিতেই প্রধান চরিত্র করেছেন আরিফিন শুভ ও ঐশী।

পরিচালক দীপংকর দীপন বছরখানেক আগেই তারকাবহুল অপারেশন সুন্দরবন ছবিটি ইদুল আজহায় মুক্তির ঘোষণা দিয়েছিলেন। এখন ইদে ছবিটির মুক্তি থেকে সরে এলেন তিনিও। দীপন বলেন, ‘এখনো দেশের প্রেক্ষাগৃহগুলো ঠিকমতো চালু হয়নি। জেলা শহরগুলোতেও করোনা ছড়িয়ে পড়েছে। বর্তমানে তা ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। যে পরিস্থিতি, তাতে মনে হচ্ছে আগামী ঈদও সারা দেশ লকডাউনের আওতায় থাকতে পারে। প্রেক্ষাগৃহও বন্ধ থাকবে।’

ছবিটিতে অভিনয় করেছেন সিয়াম আহমেদ, নুসরাত ফারিয়া, তাসকিন রহমান, রোশান, দর্শনা বণিক (কলকাতা), রওনক হাসান প্রমুখ। প্রযোজক সোহানী হোসেন জানালেন, ইদে মুক্তি দিচ্ছেন না অন্তরাত্মা। তিনি বলেন, ‘ঈদুল ফিতরে মুক্তির লক্ষ্যে টানা শুটিং করে ছবিটি বানিয়েছিলাম। কিন্তু ওই সময় মুক্তির পরিবেশ ছিল না। এবারও তা–ই। ঈদে মুক্তির চিন্তা এখন আর মাথায় নেই। ইদের সময় দর্শকের জটলা একটু বেশি হয়।

প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে দর্শকের মধ্যে করোনা সংক্রমণ বাড়তে পারে। ঝুঁকি নিচ্ছি না। ছবি প্রস্তুত রাখছি। পরে যেকোনো সময় মুক্তি দেব।’ ওয়াজেদ আলী সুমন পরিচালিত ছবিটিতে অভিনয় করেছেন শাকিব খান, দর্শনা বণিক, শাহেদ শরীফ খান প্রমুখ।

এক বছর ধরে ঈদে মুক্তির অপেক্ষায় আছে শামীম আহমেদের বিক্ষোভ ও শাহিন সুমনের বিদ্রোহী। তাঁরাও আর ছবি দুটি মুক্তির জন্য ঈদের অপেক্ষা করবেন না। বিদ্রোহী প্রেক্ষাগৃহের বাইরে বিকল্প উপায়ে মুক্তি দেওয়ার কথাও ভাবা হচ্ছে। ছবি দুটির প্রযোজক সেলিম খান বলেন, ‘ইদুল আজহার দিন ছবিটি স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মে মুক্তি দেওয়ার ইচ্ছা আছে।’
বিদ্রোহী ছবিতে অভিনয় করেছেন শাকিব খান, বুবলী প্রমুখ এবং বিক্ষোভ ছবিতে শান্ত খান, ভারতের শ্রাবন্তী, রজতাভ দত্ত, রাহুল দেব প্রমুখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে