ছেলেদের ত্বকের যত্ন

প্রকাশিত: জুলাই ১৩, ২০২১; সময়: ১:১০ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ত্বকের যত্ন কিংবা সৌন্দর্যচর্চা শব্দগুলো যেন শুধু নারীদের জন্যই সংরক্ষিত। অনেক পুরুষও ভাবেন এমনই। সাধারণভাবে অনেকেই বলবেন, সাজগোজ বা রূপচর্চা সে তো মেয়েদের বিষয়। অথচ ত্বকের যত্ন নেওয়া এবং সাজগোজ একেবারেই আলাদা। কারণ, ছেলেদেরও ত্বকের যত্ন নেওয়া প্রয়োজন, এ বিষয় অনেকেই এখন অনুধাবন করতে পারেন। অনেকেই ধীরে ধীরে আরও বেশি সচেতন হয়ে উঠছেন। কারণ, ছেলেদের ত্বক এমনিতেই বেশি রুক্ষ। তাই তাদের ত্বকের সমস্যাও বেশি। সঠিক সময়, সঠিক যত্নে এসব সমস্যার সমাধান হতে পারে। তবে মাথায় রাখতে হবে, ত্বকের যত্ন মানেই অনেক বেশি সৌন্দর্যপণ্যের ব্যবহার নয়, বরং সটিক পণ্য ব্যবহার।

ফেসওয়াশ ব্যবহার
মুখ ধুতে সাধারণ সাবানের পরিবর্তে ফেসওয়াশ ব্যবহার করা উচিত। এখন বাজারে ছেলেদের জন্য আলাদা ফেসওয়াশ পাওয়া যায়। কারণ, সাধারণ সাবানে অনেক বেশি রুক্ষ উপাদান থাকে; যা মুখের ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। যাঁরা বাইরে অনেক বেশি সময় থাকেন এবং ওয়র্কআউট করেন, তাঁদের মুখ ধোওয়ার জন্য ফেসওয়াশ ব্যবহারের পর অল্প গরম পানিতে মুখ ধুয়ে নিতে হবে এবং সপ্তাহে অন্তত দুদিন স্ক্র্যাব করানো উচিত। এতে ব্রণের সমস্যারও সমাধান হবে।

যাঁরা নিয়মিত শেভ করেন, তাঁদের কিছু বিষয় মেনে চলা উচিত। যেমন সঠিক পদ্ধতিতে শেভ না করলে রেজার বার্ন বা রেজার বাম্পের মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে। এ ধরনের সমস্যা এড়াতে মাল্টি ব্লেড রেজার ছেড়ে সিঙ্গল বা ডাবল ব্লেড রেজার ব্যবহার করা উচিত। পাশপাশি সাধারণ শেভিং ক্রিমের বদলে ময়শ্চারাইজিং শেভিং ক্রিম বেছে নিতে হবে। প্রয়োজনে প্রতিবার রেজার টানার পর মুখ ধুয়ে নিতে পারেন। যাঁদের ত্বক অনেক বেশি সংবেদনশীল, তাঁরা তিন থেকে পাঁচবার শেভের পরই ব্লেড বদলে ফেলুন এবং সেন্টেড আফটারশেভ ব্যবহার না করাই ভালো।

ত্বকের আদ্রতা ধরে রাখুন
সাধারণত ত্বক শুষ্ক হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ত্বকের নানা সমস্যা বাড়তে থাকে। এ জন্য ময়শ্চারাইজার ব্যবহার খুবই জরুরি। এটি যে শুধু ত্বককে স্বাস্থ্যোজ্জ্বল রাখে, তা নয়। ত্বকে বয়সের ছাপও পড়তে দেয় না। ময়শ্চারাইজার ব্যবহারের সবচেয়ে ভালো সময় গোসল ও শেভ করার পর।

সানস্ক্রিনও জরুরি
নগরায়ণের ফলে বাড়ছে দূষণ। আর প্রখর রোদে বেশি সময় থাকলে ত্বকে নানা ধরনের সমস্যা দেখা দেয়। এ ধরনের ক্ষতি থেকে ত্বককে রক্ষা করতে বাইরে বেরোলেই চাই সানস্ক্রিন। ব্রড-স্পেকট্রাম, ওয়াটার-রেজিস্ট্যান্ট, এসপিএফ থারটি রয়েছে, এমন সানস্ক্রিন ব্যবহার করা উচিত।
প্রোডাক্টের লেবেল দেখে নেওয়া

নিজের ত্বকের ধরন অনুযায়ী যথাযথ পণ্য বেছে নেওয়া উচিত। ব্রণ-অ্যাকনের সমস্যা থাকলে ‘অয়েল ফ্রি’ ক্লিনজার ও ময়শ্চারাইজার ব্যবহার করাই ভালো। সংবেদনশীল ত্বকের জন্য অবশ্যই কোমল, সুগন্ধহীন পণ্য নির্বাচন করতে হবে। মেয়েদের ত্বকের যেমন নানা ধরন রয়েছে, তেমনি পুরুষেরও। তাই যেকোনো সৌন্দর্যপণ্য কেনার আগে বুঝতে হবে আপনার ত্বকের ধরন। সেনসিটিভ, স্বাভাবিক, শুষ্ক, তৈলাক্ত বা কম্বিনেশন ত্বকের ধরন অনুযায়ী পণ্য নির্বাচন করতে হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে