গদি সামলাতে প্রতিশ্রুতির ঝাঁপি খুললেন শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট

প্রকাশিত: মে ১২, ২০২২; সময়: ১০:৩৭ am |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ‘গৃহযুদ্ধের আবহ’ সামাল দিতে নতুন প্রধানমন্ত্রী নিয়োগ ও মন্ত্রিসভা গঠনের ঘোষণা দিয়েছেন শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে। দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়া গণআন্দোলন থামাতে বুধবার জাতির উদ্দেশ্যে দেয়া এক ভাষণে এমন ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। এদিন নির্বাচনী ইস্তাহারের মতোই দেশবাসীর উদ্দেশ্যে বেশ কিছু প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন রাজাপাকসে পরিবারের অন্যতম ক্ষমতাধর এই ব্যক্তি।

ভাষণে গোতাবায়া রাজাপাকসে বলেন, সপ্তাহেই গঠিত হবে নতুন মন্ত্রিসভা। নিয়োগ করা হবে নতুন প্রধানমন্ত্রী। এরপর সংবিধান সংশোধন করা হবে। খবর আল জাজিরার

তবে এতকিছুর পরও নিজের চেয়ার ছাড়তে রাজি নন তিনি। প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া বলেন, ‘আমাদের এই পরিস্থিতির উপর নিয়ন্ত্রণ আনতে হবে। কোনোভাবেই দেশে অরাজকতা ছড়াতে দেওয়া যাবে না।’

গোতাবায়ার আশা, নতুন প্রধানমন্ত্রী এবং মন্ত্রিসভার সদস্যদের নিয়োগ করলেই পার্লামেন্টে তৈরি হওয়া অচলাবস্থা বহুলাংশেই দূর করা সম্ভব হবে। সাধারণ জনগণের ভরসা অর্জন করতে পারবে এমন মন্ত্রিসভা গঠণ করা হবে।

শ্রীলঙ্কাবাসীর উদ্দেশ্যে প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘সরকার গঠনের পর ১৯তম সংশোধনীর আওতায় সংবিধানে একাধিক রদবদল ঘটানো হবে। যার মাধ্যমে পার্লামেন্টের সদস্যদের হাতে আরও বেশি ক্ষমতা দেওয়া হবে। নতুন সরকারের প্রধানমন্ত্রী অনেক বেশি ক্ষমতাশালী হবেন। দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য তিনি প্রয়োজন মতো নতুন পরিকল্পনা তৈরি করতে পারবেন এবং সেগুলোর বাস্তবায়নও করা হবে।’

তবে প্রেসিডেন্টের এমন প্রতিশ্রুতির পরও অবস্থার খুব বেশি পরিবর্তন হবে না বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। কারণ বিক্ষোভকারীদের প্রধান দাবি হলো, রাজাপাকসে পরিবারের হস্তক্ষেপহীন সরকার গঠন এবং গোতাবায়ার অপসারণ। তাই বর্তমান প্রেসিডেন্ট যতক্ষণ পর্যন্ত না পদত্যাগ করছেন, ততক্ষণ জনরোষ নিয়ন্ত্রণে আনা দুষ্কর। দ্বিতীয়ত, শ্রীলঙ্কার অর্থনীতির যে ক্ষতি হয়েছে, তা রাতারাতি ঠিক করাও অসম্ভব।

প্রধানমন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দেয়ার পর থেকে নৌবাহিনীর একটি ঘাঁটতে আশ্রয় নিয়েছেন মাহিন্দা রাজাপাকসে। সেখানে রয়েছে রাজাপাকসে পরিবারের অন্যান্য সদস্যরাও।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপে