শত্রু নির্মূলে সেনাবাহিনীর শক্তি বৃদ্ধির নির্দেশ কিমের

প্রকাশিত: এপ্রিল ২৯, ২০২২; সময়: ২:২৪ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : শত্রুপক্ষকে নির্মূল করতে উত্তর কোরিয়ার সেনাবাহিনীকে সর্বক্ষেত্রে শক্তি বৃদ্ধির নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির নেতা কিম জং উন। সেনাবাহিনীর ৯০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে এই নির্দেশনা দেন তিনি। শুক্রবার (২৯ এপ্রিল) এক প্রতিবেদনে এ খবর দিয়েছে আলজাজিরা।

গত সোমবার (২৫ এপ্রিল) সেনাবাহিনীর ৯০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্‌যাপন করে উত্তর কোরিয়া। উদ্‌যাপনের অংশ হিসেবে এদিন রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ে আগের চেয়ে আরও বড় করে সামরিক কুচকাওয়াজ ও প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়।

এদিন আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) হোয়াসং-১৭-সহ উত্তর কোরিয়ার নতুন নতুন মডেলের বিভিন্ন ক্ষেপণাস্ত্র প্রদর্শন করা হয়।

২০১৭ সালের পর গত মার্চে উত্তর কোরিয়া তাদের সবচেয়ে বড় ক্ষেপণাস্ত্র হিসেবে পরিচিত আইসিবিএম পরীক্ষা চালায়। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এ পরীক্ষার তীব্র নিন্দা জানিয়েছিল।

ওই পরীক্ষার পর উত্তর কোরিয়ার ওপর বেশ কিছু নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিল যুক্তরাষ্ট্রও। পারমাণবিক অস্ত্র বহনে সক্ষম আইসিবিএম দিয়ে উত্তর কোরিয়া যুক্তরাষ্ট্রের মূল ভূখণ্ডেও আঘাত হানতে সক্ষম।

বিশাল এ সামরিক প্রদর্শনী শেষে সেনা, প্রচারমাধ্যম ও অন্যদের সঙ্গে ফটোসেশন করেন কিম। এদিন তার পরনে ছিল সামরিক স্টাইলের পোশাক। এদিন রাতের এক ভাষণে দেশের পরমাণু কর্মসূচি জোরদারের অঙ্গীকার করেন কিম।

তিনি বলেন, ‘আমরা সর্বোচ্চ দ্রুতগতিতে আমাদের পারমাণবিক সক্ষমতা আরও শক্তিশালী এবং উন্নত করার জন্য পদক্ষেপ নিতে থাকব।’ উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক বাহিনী যেকোনো সময় মহড়ার জন্য অবশ্যই প্রস্তুত থাকবে বলেও জানান কিম।

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কেসিএনএ জানায়, কিম জং উন বলেছেন, তার দেশের পারমাণবিক শক্তি মূলত যুদ্ধ ঠেকানোর হাতিয়ার। তবে তা অন্যভাবেও ব্যবহার হতে পারে।

এর মধ্য দিয়ে তিনি মূলত আগের মন্তব্যেরই ‍পুনরাবৃত্তি করে বলতে চেয়েছেন, আক্রান্ত হলে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার করবে উত্তর কোরিয়া।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপে