জোড়া টর্নেডোয় লণ্ডভণ্ড টেক্সাস

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১১, ২০২২; সময়: ১১:০২ am |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : পরপর দুটি টর্নেডোর আঘাতে লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের কয়েকটি শহর।

ঝড়ো হাওয়া আর বৃষ্টিপাতের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বহু ঘরবাড়ি ও রাস্তাঘাট। এতে পুরোপুরি ভেঙে পড়েছে দুটি শহরের মধ্যে যোগাযোগ ব্যবস্থা।

অন্যদিকে, ভারি বৃষ্টিতে ভয়াবহ বন্যার কবলে পড়েছে ব্রাজিলের পারা অঙ্গরাজ্য। বন্যায় গৃহহীন হয়ে পড়েছেন সেখানকার অন্তত পাঁচশো পরিবার। প্লাবিত হয়েছে নিম্নাঞ্চল।

স্থানীয় সময় শনি ও রোববার টেক্সাসের কয়েকটি শহরে আঘাত হানে কমপক্ষে দুটি টর্নেডো। স্থানীয় আবহাওয়া অফিস জানায়, আঘাত হানা টর্নেডোর একটিতে বাতাসের গতি ছিল ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৮০ কিলোমিটার, অন্যটিতে প্রায় ১১৫ কিলোমিটার।

টর্নেডোর আঘাতে মুহূর্তেই লণ্ডভণ্ড হয়ে যায় হিউস্টন, লিবার্টি, ও হ্যারিস শহরের বহু ঘরবাড়ি। রাস্তায় গাছ পড়ে বন্ধ হয়ে গেছে কয়েকটি এলাকার যোগাযোগ ব্যবস্থা। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

এদিকে কয়েকদিনের টানা বর্ষণে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন অঙ্গরাজ্যে দেখা দেয়া বন্যা পরিস্থিতির এখনো কোন উন্নতি হয়নি। পানিবন্দি হয়ে রয়েছেন প্রদেশটির সেন্ট্রালিয়া শহরের বাসিন্দারা। মঙ্গলবার ও বুধবার শহরটিতে ভারি বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ।

গেল কয়েক সপ্তাহ ধরে চলা বৃষ্টিপাতের কারণে ভয়াবহ বন্যা দেখা দিয়েছে ব্রাজিলের পারা অঙ্গরাজ্যে। রাস্তাঘাট ডুবে যাওয়ায় সড়কে চলছে না কোনো গাড়ি।

যাতায়াতের জন্য স্থানীয় বাসিন্দারা ব্যবহার করছেন ছোট নৌকা। বন্যায় এরইমধ্যে গৃহহীন হয়ে পড়েছে অঞ্চলটির প্রায় ৫০০ পরিবার। যারা এখনো নিরাপদ আশ্রয়ে জাননি, মানবেতর জীবন যাপন করছেন তারা।

একজন বলেন, আমরা চারপাশেই পানিবন্দি হয়ে পড়েছি। অনেক দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে আমাদের। কর্তৃপক্ষের উচিত আমাদের প্রতি আরো মনোযোগী হওয়া।

মারাবার পানি আবারো বেড়ে গেছে, যে কারণে মানুষ আতঙ্কে আছে।নিচু এলাকার মানুষদের কোথাও যাওয়ার জায়গা নেই, তাই তারা নিজেদের ঘরেই আছেন। আমরা এখন পুরোপুরি বিচ্ছিন্ন অবস্থায় আছি।

সাম্প্রতিক সময়ে বন্যায় ব্রাজিলের বাহিয়া প্রদেশে কমপক্ষে ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। বন্যায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮ লাখের বেশি মানুষ আর বাস্তুচ্যুত হয়ে পড়েছেন ১৯ হাজার।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে