স্কুল খুলছে দিল্লিতে

প্রকাশিত: আগস্ট ৩১, ২০২১; সময়: ১:১৩ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) থেকে খুলছে ভারতের রাজধানী দিল্লির শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। করোনা মহামারির কারণে প্রায় পাঁচ মাস বন্ধ থাকার পর দিল্লিতে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হতে যাচ্ছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে বলা হয়েছে, সোমবার বিভিন্ন দিক-নির্দেশনা ঘোষণা করেছে দিল্লির দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ (ডিডিএমএ)।

ডিডিএমএ-এর নীতিমালায় বলা হয়েছে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে জরুরি ব্যবহারের জন্য কোয়ারেন্টাইন রুম চালু রাখতে হবে। এ ছাড়া সামাজিক তথা শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করার অংশ হিসেবে ছোট ছোট দলে ভাগ করে দুপুরের খাবার খাওয়ার ব্যবস্থা করা।

নীতিমালায় আরও বলা হয়, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুললেও লকডাউন জোনে থাকা ছাত্র ও শিক্ষকরা ক্লাসে আসতে পারবেন না। পাশাপাশি স্কুল-কলেজে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে নেওয়া হয়েছে বিভিন্ন উদ্যোগ। এর অংশ হিসেবে একটি নির্দিষ্ট দিনে সর্বোচ্চ ৫০ শতাংশের বেশি শিক্ষার্থী ক্লাসে আসতে পারবে না। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোকেও সেভাবেই রুটিন তৈরি করার নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এর আগে দিল্লি সরকার জানায়, ১ সেপ্টেম্বর থেকে পর্যায়ক্রমে সব শিক্ষার্থীদের জন্য ক্লাস শুরু করতে পারবে স্কুল ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো। প্রথম পর্যায়ে সরকারি ও বেসরকারি স্কুলে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা স্কুলে যেতে পারবে। একই নিয়ম প্রযোজ্য হবে কোচিং সেন্টারের ক্ষেত্রেও। কিন্তু সর্বশেষ ঘোষণায় ছোট ক্লাসের শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

দিল্লিতে প্রতিদিন গড়ে মাত্র ৩২ জন নতুন করে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হচ্ছে। করোনা পরিস্থিতির উল্লেখযোগ্য উন্নতি হওয়ায় পর্যায়ক্রমে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হলো।

এদিকে করোনা মহামারির মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো চালু রাখতে শিক্ষক ও স্কুলের কর্মীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে টিকা দেয়ার পরামর্শ দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও জাতিসংঘের শিশু তহবিল ইউনিসেফ। সোমবার (৩০ আগস্ট) জাতিসংঘের এই দুই সংস্থার বিবৃতিতে এমন আহ্বান জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, গ্রীষ্মের ছুটির পর স্কুলগুলো আবার খুলতে যাচ্ছে। স্কুল খোলার পর শিক্ষার্থীদের ক্লাসরুমে উপস্থিত থাকার বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ কারণে শিক্ষক ও কর্মচারীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে টিকা দিতে হবে।

  • 41
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে