শিশুকে উদ্ধারে গিয়ে কুয়ায় পড়লেন ৪০ জন, মৃত বেড়ে ১১

প্রকাশিত: জুলাই ১৭, ২০২১; সময়: ১২:০৭ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : খেলতে খেলতে কুয়ায় পড়ে গিয়েছিল ৮ বছরের একটি মেয়ে শিশু। সেই ৪০ ফুট কুয়া থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করতে গিয়ে কুয়ায় পড়ে যান আরও ৪০ জন। শেষ পাওয়া খবর পর্যন্ত এ ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। ক্রমেই বাড়ছে মৃতের সংখ্যা।

এদিকে মর্মান্তিক এই ঘটনার পর ২০ জনের বেশি মানুষকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ২০ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মধ্যপ্রদেশের বিদিশায়।

গত বৃহস্পতিবার এই ঘটনা ঘটে। শুক্রবার প্রাথমিকভাবে ৩ জনের মৃত্যুর কথা জানানো হয়েছিল। তবে শনিবার (১৭ জুলাই) এক প্রতিবেদনে মৃতের সংখ্যা ১১ জনে দাঁড়িয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস। এ ঘটনায় এখনও সেখানে উদ্ধার তৎপরতা চলছে।

হিন্দুস্তান টাইমস বলছে, ভারতের মধ্যপ্রদেশ রাজ্যের বিদিশা জেলার গঞ্জবাসোদা গ্রামে এক শিশু খেলতে খেলতে ৪০ ফুট গভীর কুয়ার ভেতরে পড়ে যায়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এই ঘটনাটি ঘটে। খবর পেয়ে গ্রামবাসীরা সেই মেয়েটিকে উদ্ধারের চেষ্টা শুরু করেন। তাদের সেই উদ্ধার চেষ্টার মধ্যেই একপর্যায়ে কুয়ার দেওয়াল ধসে পড়ে। এসময় প্রায় ৪০ জন কুয়ার মধ্যে পড়ে যান।

অবশ্য কুয়ার মধ্যে প্রথমে পড়ে যাওয়া সেই শিশু কী অবস্থায় রয়েছে, তা সরকারের পক্ষ থেকে এখনও কিছু জানানো হয়নি। এদিকে পুলিশের অ্যাডিশনাল ডিরেক্টর অব জেনারেল (ভোপাল ডিভিশন) সাই মনোহর জানান, পড়ে যাওয়া শিশুকে উদ্ধারের সময় কুয়ার দেওয়াল ধসে পড়ে। সেসময় প্রায় ৪০ জন কুয়ার মধ্যে পড়ে যান। ঘটনাস্থলে তিনটি জেসিবি মেশিন, এনডিআরএফ এবং সেনার দল রয়েছে।

এদিকে এ ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এক টুইট করে মোদি জানান, কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে মৃতদের পরিবারকে ২ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে।

এছাড়া এ ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেছেন মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহানও। রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে মৃতের পরিবারকে সরকারি চাকরি এবং ৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করা হয়েছে। আহতদেরকে ৫০ হাজার টাকা করে দেওয়ার কথা জানানোর পাশাপাশি তাদেরকে বিনামূল্যে চিকিৎসা দেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হযেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে