কানাডায় পাঁচ দিনে তীব্র তাপদাহে ৪৮৬ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত: জুলাই ২, ২০২১; সময়: ১০:৫৯ am |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : তীব্র দাবানলে কানাডার পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ ব্রিটিশ কলোম্বিয়ার লিটন নামের একটি গ্রামের ৯০ শতাংশ পুড়ে গেছে। এই গ্রামেই সম্প্রতি দেশটির মধ্যে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল।

স্থানীয় সংসদ সদস্য ব্র্যাড ভিসের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যম বিবিসি আজ শুক্রবার এ তথ্য জানিয়েছে। এদিকে গত পাঁচ দিনে তীব্র তাপপ্রবাহে কানাডার ব্রিটিশ কলম্বিয়ায় অন্তত ৪৮৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।

প্রদেশের মরদেহ পরীক্ষা কেন্দ্রের প্রধান লিসা ল্যাপোইন্টি এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, শুক্রবার থেকে বুধবার (৩০ জুন) দুপুর ১টা পর্যন্ত মৃত্যুর এই সংখ্যা জানা গেছে।

তিনি বলেছেন, ‘আমাদের বিশ্বাস এই মৃত্যুগুলোর পেছনে তাপ একটি সম্ভাব্য বিষয়। তবে এটি নিশ্চিত হতে হবে।’

লিসা জানান, যারা মারা গেছেন তাদের অধিকাংশই একাকী বাস করতেন। যেসব বাসায় তারা থাকতেন সেখানে গিয়ে দেখা গেছে, ঘরে তীব্র গরম এবং বাতাস আসা-যাওয়ার ব্যবস্থা ছিল না। মৃতের প্রাথমিক সংখ্যা ৪৮৬। তবে শব পরীক্ষা কেন্দ্রে আরও মৃত্যুর খবর আসছে বিধায় মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে।

অন্যদিকে, লিটনের মেয়র জ্যান পোলডারম্যান বিবিসিকে বলেছেন, তিনি সৌভাগ্যবান যে, ওই এলাকা থেকে নিজের জীবন নিয়ে বেরিয়ে আসতে পেরেছেন। তিনি বলেন, ‘লিটনে আর বেশি কিছু অবশিষ্ট থাকবে না। সেখানে সর্বত্রই আগুন জ্বলছে।’

ভ্যানকুভারের পুলিশ সার্জেন্ট স্টিভ অ্যাডিসন এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘আমরা এর আগে কখনও এমন দেখিনি। এমন অবস্থায় আমরা মর্মাহত।’

চলতি সপ্তাহে গ্রামটিতে দেশটির সর্বোচ্চ ৪৯ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস (১২১.৩ ফারেনহাইট) তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল। এ ছাড়াও উত্তর আমেরিকার বিভিন্ন এলাকায় অস্বাভাবিক তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রেকর্ড ভাঙা তাপমাত্রা বাড়ার পেছনে বড় ভূমিকা রয়েছে জলবায়ু পরিবর্তনের।

  • 126
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে