ওবামাকেয়ার নিয়ে ট্রাম্পের চ্যালেঞ্জ নাকচ করেছে আদালত

প্রকাশিত: জুন ১৮, ২০২১; সময়: ১২:০২ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে সাবেক আরেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের চ্যালেঞ্জ নাকচ করে দিয়েছেন মার্কিন সুপ্রিম কোর্ট। ৯ বিচারকের মধ্যে ৭ জন এর বিপক্ষে রায় দেন। আদালত বলেছেন, যাঁরা চ্যালেঞ্জ করেছেন, তাঁদের মামলা করার মতো আইনি অবস্থান নেই। খবর বিবিসির।

২০১০ সালের পর থেকে এ নিয়ে তৃতীয়বার অ্যাফোর্ডেবল কেয়ার অ্যাক্ট (ওবামাকেয়ার নামে পরিচিত) সুরক্ষিত হলো। ওবামাকেয়ারের আওতায় কয়েক লাখ নিম্ন আয়ের মার্কিনির স্বাস্থ্যসেবা পাওয়ার সুযোগ তৈরি হয়েছে। ওবামাকেয়ারের একটি বিধান অসাংবিধানিক কি না, এ প্রশ্ন নিয়ে স্থানীয় সময় গত বৃহস্পতিবার আদালতের রুলে কিছু জানানো হয়নি।

টেক্সাসসহ রিপাবলিকান শাসিত ১৭ অঙ্গরাজ্যে ওবামাকেয়ার নিয়ে করা আইনি পদক্ষেপ সমর্থন করেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর ট্রাম্প ওবামাকেয়ার বাতিল করবেন বলে জানিয়েছিলেন। রিপাবলিকানরা ওবামাকেয়ার বাতিলের জন্য কংগ্রেসে বারবার চেষ্টা করেন। তবে প্রতিবারই তাঁরা ব্যর্থ হয়েছেন। এ মাসের শুরুতে হোয়াইট হাউস জানায়, ৩ কোটির বেশি মার্কিনি ওবামাকেয়ারের আওতায় এসেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এক বিবৃতিতে আদালতের দেওয়া রুলকে মার্কিনিদের বিজয় হিসেবে অভিহিত করেন। বাইডেন বলেন, এটি তাঁর নিজেরও জয়। নির্বাচনী অ্যাজেন্ডায় বাইডেন স্বাস্থ্যসেবা উন্নয়নের কথা বলেছিলেন। এসিএ কার্যকর করতে নির্বাহী শক্তি ব্যবহারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। রিপাবলিকানদের অভিযোগ, ওবামাকেয়ারের কারণে খরচ বেড়েছে। তবে স্বাস্থ্যসেবার মান কমেছে।

টেক্সাসের রিপাবলিকান কেভিন ব্র্যাডি এক টুইটে জানান, আদালতের রুলে তিনি হতাশ। ত্রুটিপূর্ণ একটি আইন সুরক্ষিত করায় তিনি আদালতের সমালোচনা করেন। তবে ৫৪ শতাংশ মার্কিনি এ আইনের পক্ষে। গত ফেব্রুয়ারিতে পরিচালিত কায়সার ফ্যামিলি ফাউন্ডেশনের জরিপ বলছে, এটি দেশের স্বাস্থ্যসেবার সঙ্গে ওতপ্রোতোভাবে জড়িত। ২৬ বছর বয়স পর্যন্ত মা-বাবার স্বাস্থ্য পরিকল্পনার আওতায় শিশুদের অন্তুর্ভুক্ত রাখাসহ বিভিন্ন বিধানের কারণে ওবামাকেয়ার বেশ জনপ্রিয়।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে