৪ হাসপাতালে বেড না পেয়ে অ্যাম্বুলেন্সেই মৃত্যু!

প্রকাশিত: এপ্রিল ২০, ২০২১; সময়: ১০:৪৬ am |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ভারতে চলছে করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ। করোনা মহামারি মোকাবিলায় রীতিমতো যুদ্ধ করছে বিভিন্ন রাজ্য। কোভিড-১৯ এ ভারতের সবচেয়ে জনবহুল রাজ্য উত্তর প্রদেশ বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। যদিও কর্তৃপক্ষ বলছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, দেশটিতে করোনা এতোই মারাত্মক রূপ ধারণ করেছে যে হাসপাতালে বেড খালি না থাকায় অ্যাম্বুলেন্সেই মারা যাচ্ছেন রোগীরা।

কানপুর শহরের বাসিন্দা কুনাল জিত সিংহ (৫৮) শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) অ্যাম্বুলেন্সের ভেতরে মারা যান। চারটি হাসপাতাল ঘুরেও তার জন্য বেডের ব্যবস্থা করতে পারেননি স্বজনরা। প্রতিটি হাসপাতাল থেকেই ব্যর্থ হয়ে ফিরতে হয়েছে। পরে অ্যাম্বুলেন্সেই মারা যান কুনাল।

তার ছেলে নীরঞ্জন পাল সিং বলেন, ‘দিনটি আমার জন্য খুবই হৃদয়বিদারক ছিল। আমি বিশ্বাস করি, যদি আমার বাবা সঠিক সময়ে চিকিৎসা পেতেন তাহলে তিনি বেঁচে যেতেন। কিন্তু পুলিশ, স্বাস্থ্যকর্মীরা বা সরকার কেউই আমাদের সাহায্য করেনি।’

উত্তর প্রদেশে মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৮ লাখ ৫১ হাজার ৬২০ জন। মারা গেছেন ৯ হাজার ৮৩০ জন। করোনার প্রথম ঢেউয়ে অন্যান্য রাজ্যে বেহাল অবস্থা হলেও উত্তর প্রদেশ তা ভালোভাবেই মোকাবিলা করে। কিন্তু এর দ্বিতীয় ঢেউ রাজ্যটিকে খাদের কিনারায় ফেলে দিয়েছে।

  • 528
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে