নভেম্বরের পর ভারতে প্রথম একদিনে ৪০ হাজারের বেশি রোগী

প্রকাশিত: মার্চ ২০, ২০২১; সময়: ২:৩৮ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ভারতে গত একদিনে ৪০ হাজার ৯৫৩ জন মহামারী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। গত ২৯ নভেম্বরের পর যা একদিনে সর্বোচ্চ দৈনিক শনাক্তের সংখ্যা।

এ সময়ে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে দেশটিতে ১৮৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক লাখ ৫৯ হাজার ৫৫৮ জনে।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, পুরোদমে টিকাদান কর্মসূচি চলার মধ্যেই সংক্রমণের এই ঊর্ধ্বগতি দেশটিকে দুশ্চিন্তায় ফেলে দিয়েছে।

এতে বেশ কয়েকটি রাজ্য ফের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ, জনসমাম নিষিদ্ধসহ বিভিন্ন বিধিনিষেধ আরোপের সিদ্ধান্তের কথা ভাবছে। সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত জেলাগুলোতে লকডাউনও ঘোষণা করা হতে পারে।

এক বছর আগে প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পর দক্ষিণ এশিয়ার দেশটিতে শনিবার পর্যন্ত এক কোটি ১৫ লাখ ৫৫ হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে।

মহারাষ্ট্র, পাঞ্জাব, কেরালা, কর্নাটক ও গুজরাটে নতুন কোভিড রোগীর সংখ্যা আগের দিনের চেয়ে বেশি দেখা যাচ্ছে।

এ নিয়ে টানা তিনদিন ভারতে দৈনিক শনাক্ত ৩০ হাজারের বেশি দেখা গেছে। শুক্রবার দেশটি ৩৯ হাজার ৭২৬ জন নতুন রোগী শনাক্ত হওয়ার কথা জানিয়েছিল। গত সপ্তাহ থেকে দেশটিতে প্রতিদিন ২০ হাজারের বেশি পাওয়া যাচ্ছে।

শনিবার ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে যে প্রায় ৪১ হাজার রোগী পাওয়ার কথা জানিয়েছে এর ৮০ দশমিক ৬৩ শতাংশই শনাক্ত হয়েছে মহারাষ্ট্র, পাঞ্জাব, কর্নাটক, গুজরাট ও ছত্তিশগড়ে।

শনাক্ত রোগী এবং মৃত্যু বিবেচনায় পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য মহারাষ্ট্র এখনও দেশটির অন্য সব অঞ্চলের চেয়ে উপরে অবস্থান করছে।

মহারাষ্ট্রের পার্শ্ববর্তী মধ্য প্রদেশের রাজধানী ভোপালের পাশাপাশি ইন্দোর ও জবলপুরে শনিবার রাত ১০টা থেকে সোমবার ভোর ৬টা পর্যন্ত লকডাউনে যাচ্ছে। এই তিন শহরের স্কুল-কলেজগুলো ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

  • 23
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে