খাশোগি হত্যার চাঞ্চল্যকর তথ্য ফাঁস!

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২১; সময়: ৪:১২ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : সৌদি ভিন্নমতাবলম্বী সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ড সম্পর্কে চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ পেয়েছে। জানা গেছে, তাকে হত্যা করতে হত্যাকারী দল সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের নিয়ন্ত্রণাধীন একটি কোম্পানরি প্রাইভেট বিমানে করে তুরস্কের ইস্তাম্বুল শহরে উড়ে গিয়েছিল।

সম্প্রতি সৌদি সরকারের গোপন নথি থেকে এ তথ্য জানা গেছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন। ‘টপ সিক্রেট’ শিরোনামের এ নথিতে সৌদি আরবের একজন মন্ত্রীর সই রয়েছে বলেও জানিয়েছে তারা।

জানা গেছে, স্কাই প্রাইম অ্যাভিয়েশনের মালিকানা ২০১৭ সালে সৌদি আরবের সরকারি বিনিয়োগ তহবিলের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে, যাতে সার্বভৌম ৪০০ কোটি ডলারের তহবিল রয়েছে। এই কোম্পানির বিমান ২০১৮ সালের অক্টোবর মাসে খাশোগি হত্যায় ব্যবহৃত হয়েছে।

সার্বভৌম তহবিল নিয়ন্ত্রিত হয় সৌদি রাজ পরিবারের মাধ্যমে, যার সভাপতি হলেন ৩৫ বছর বয়সী যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমান।

সিএনএন বলেছে, এসব তথ্য থেকে খাশোগি হত্যায় এমবিএস’র যুক্ত থাকার প্রমাণ মেলে। এমবিএস হচ্ছে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমানের নামের সংক্ষিপ্ত রূপ।

এদিকে সৌদি সরকারের কট্টর সমালোচক ও ওয়াশিংটন পোস্টের সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডের প্রায় আড়াই বছর পর প্রতিবেদন প্রকাশ করতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের ডিরেক্টর অব দ্য ন্যাশনাল ইন্টেলিজেনস-ডিএনআই।

খাশোগিকে হত্যার বিস্তারিত এই গোয়েন্দা প্রতিবেদন এরইমধ্যে দেখেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তবে এই বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেননি তিনি।

হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জেন সাকি বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সাংবাদিকদের জানান, খুব শিগগিরই প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হবে। প্রতিবেদনটি তৈরি করতে মুখ্য ভূমিকা রেখেছে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা।

প্রতিবেদনটি এখনো প্রকাশ করা না হলেও তদন্ত সংশ্লিষ্ট চার মার্কিন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের নির্দেশেই ওই হত্যাকাণ্ড চালানো হয়।

এদিকে তদন্তাধীন বিষয়ে আগেই প্রতিবেদন প্রকাশ করা হলে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় বাধা তৈরি হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ। একই সঙ্গে প্রকৃত অপরাধী পার পেয়ে যেতে পারে বলেও সতর্ক করেছে সংস্থাটি।

এর আগে ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে খাশোগি হত্যার তদন্ত করতে একটি বিল পাস হয় মার্কিন কংগ্রেসে। মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থাকে ৩০ দিনের মধ্যে একটি প্রতিবেদন প্রকাশের সময়সীমা বেঁধে দেয়া হলেও সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সে সময় তাতে বাধা দিয়ে বলেন, এ কাজে সিআইয়ের গোপনীয়তা নষ্ট হতে পারে। কিন্তু বাইডেনের শাসনামলে সে প্রতিবেদনই এবার প্রকাশ হতে যাচ্ছে।

ওয়াশিংটন পোস্টের কলামিস্ট, ৫৯ বছর বয়সী খাশোগি ২০১৮ সালের ২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে প্রবেশ করেন। সেখানে তাকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। তার দেহাবশেষ আর পাওয়া যায়নি।

সৌদি আরব প্রথমে খাশোগি খুন হওয়ার কথা অস্বীকার করলেও আন্তর্জাতিক চাপের মুখে পরে তারা স্বীকার করতে বাধ্য হয়। খাশোগি হত্যায় সৌদির আদালত দেশটির পাঁচজন নাগরিককে মৃত্যুদণ্ড দেন। পরে খাশোগির পরিবার হত্যাকারীদের ক্ষমা করে দিলে তাদের সাজা কমিয়ে ২০ বছর করে জেল দেয়া হয়।

  • 9
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে