লাখের ঘর পেরোনোর দিনেও দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মৃত্যু দেখল ব্রিটিশরা

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৭, ২০২১; সময়: ১০:৩৯ am |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : বিশ্বে চলছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ এবং ইউরোপসহ কয়েকটি দেশে মিলেছে করোনার নতুন ধরন। এটি আগের ভাইরাস থেকে অনেকটা শক্তিশালী বলে ধারণা করছেন বিশেষজ্ঞরা। এরই মধ্যে লাখের ঘর পেরিয়ে গেছে যুক্তরাজ্যের মৃত্যু। গত কয়েক দিনে প্রায় নিয়মিত এক হাজার ৫ শতাধিক মৃত্যু দেখেছে দেশটির মানুষ।

গত ২৪ ঘণ্টায়ও দেশটিতে তাণ্ডব চালিয়েছে করোনা। সেই তাণ্ডবে বুধবার (২৭ জানুয়ারি) দেশটিতে এক হাজার ৬৩১ জনের মৃত্যু হয়েছে। ব্রিটিশ ভূখণ্ডে করোনায় একদিনে প্রাণহানির দিক থেকে এটা দ্বিতীয়।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) দেশটিতে সর্বোচ্চ এক হাজার ৮২০ জনের মৃত্যু হয়েছিল। এ ছাড়া বুধবার (২০ জানুয়ারি) তৃতীয় সর্বোচ্চ এক হাজার ৬১০ জনের মৃত্যু হয়েছিল। আর বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) দেশটিতে চতুর্থ সর্বোচ্চ এক হাজার ৫৬৪ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছিল।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, বুধবার (২৭ জানুয়ারি) সকাল পর্যন্ত দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে এক লাখ ১৬২ জন মানুষের। সংক্রমিত হয়েছেন ৩৬ লাখ ৮৯ হাজার ৭৪৬ জন। আর বুধবার সকাল পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১০ কোটি ৮ লাখ ২২ হাজার ৪০১ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ২১ লাখ ৬৬ হাজার ৯৫০ জনের। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন সাত কোটি ২৮ লাখ ৩৭ হাজার ৪৯৬ জন।

করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন দুই কোটি ৬০ লাখ ১১ হাজার ২২২ জন। মৃত্যু হয়েছে চার লাখ ৩৫ হাজার ৪৫২ জনের।
আক্রান্তে দ্বিতীয় ও মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত সংক্রমিত হয়েছেন এক কোটি ছয় লাখ ৯০ হাজার ২৭৯ জন এবং মারা গেছেন এক লাখ ৫৩ হাজার ৭৫১ জন।

আক্রান্তে তৃতীয় এবং মৃত্যুতে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত করোনায় ৮৯ লাখ ৩৬ হাজার ৫৯০ জন সংক্রমিত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে দুই লাখ ১৮ হাজার ৯১৮ জনের। আক্রান্তের দিক থেকে রাশিয়া চতুর্থ স্থানে রয়েছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩৭ লাখ ৫৬ হাজার ৯৩১ জন। ভাইরাসটিতে মারা গেছে ৭০ হাজার ৪৮২ জন।

এদিকে আক্রান্তের তালিকায় ফ্রান্স ষষ্ঠ, স্পেন সপ্তম, ইতালি অষ্টম, তুরস্ক নবম এবং জার্মানি দশম স্থানে আছে। এ ছাড়া বাংলাদেশের অবস্থান ২৭তম। গত বছরের ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হয়। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৮টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯।

  • 13
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে