বিদ্রোহে উসকানি দেওয়ায় বিচারের মুখোমুখি ট্রাম্প

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৩, ২০২১; সময়: ১১:২২ am |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ক্যাপিটল হিলে সহিংসতায় সমর্থকদের বিদ্রোহে প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্র্রাম্পকে বিচারের মুখোমুখি করা হচ্ছে। ওই ঘটনার ‘সত্যতা ও জবাবদিহি’র আওতায় আনার আহ্বান জানিয়েছেন ডেমোক্র্যাট নেতা। আগামী মাসেই সিনেটে ট্রাম্পের দ্বিতীয় অভিশংসন বিচার প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে বলেও নিশ্চিত করেছেন ডেমোক্র্যাটরা।

সিনেটে ডেমোক্র্যাট দলের নেতা চাক শুমার শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) বলেছেন, প্রতিনিধি পরিষদ সোমবারেই অভিশংসন প্রস্তাব আর্টিকেল অব ইমপিচমেন্ট সিনেটে হস্তান্তর করবে। তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে কোনো ভুল করতে চাই না, যত দ্রুত সম্ভব মার্কিন সিনেটে বিষয়টি তুলতে তাকে দোষী স্বাব্যস্ত করা। এটি হবে পূর্ণাঙ্গ ও স্বচ্ছ বিচার প্রক্রিয়া।’

তার মতে আগামী মাসে বিচারকাজ শুরু হতে পারে। প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসিও ইতিমধ্যে সিনেটকে এ বিষয়ে অবহিত করেছেন।

বিচার পক্রিয়া নিয়ে পেলোসি তার সহকর্মীদের এক চিঠিতে জানান, হাউস দুঃখের সঙ্গে অভিশংসনের প্রক্রিয়ার কাজটি এগিয়ে নিচ্ছে। ওই দিনটিকে ‘স্মরণীয় ও জাঁকজমকপূর্ণ’ হবে বলেও অ্যাখা দিয়েছেন পেলোসি।’

যদিও এ বিচার নিয়ে তাড়াহুড়া না করার পক্ষে মত দিয়েছেন ট্রাম্পের দল রিপাবলিকান পার্টির নেতারা। রিপাবলিকানরা এর আগে সিনেটে ট্রাম্পের বিচার শুরু করতে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সময় চেয়েছিল। অভিশংসন মোকাবিলার প্রস্তুতি নিতে ট্রাম্পের জন্য এই সময় প্রয়োজন বলে জানিয়েছিল তারা। কিছু ডেমোক্র্যাট এই বিলম্বে সায় দিলেও অন্যরা দ্রুত বিচারের পক্ষে ছিলেন।

যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের প্রতিনিধি পরিষদ এবং সিনেট দুই কক্ষেরই নিয়ন্ত্রণ এখন ডেমোক্র্যাটদের হাতে। সে কারণে অভিশংসন বিচার কখন, কীভাবে হবে তা নির্ধারণের ভার তাদের।

নির্বাচনে জালিয়াতির অভিযোগ তুলে গত ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটল হিলে নারকীয় তাণ্ডব চালান ট্রাম্প সমর্থকরা। ওই ঘটনায় এক পুলিশসহ পাঁচজন নিহত হয়। সমর্থকদের বিদ্রোহে উসকানি দেওয়ার অভিযোগে ১৩ জানুয়ারি কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদ ট্রাম্পকে অভিশংসিত করে। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে এই প্রথম কোনো প্রেসিডেন্ট দুবার অভিশংসিত হলেন। এবার সিনেটে অভিশংসনের প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে।

  • 16
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে