করানার তাণ্ডবে দিশেহারা ব্রিটিশরা, সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২১, ২০২১; সময়: ১:৫৬ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : টানা দ্বিতীয় দিনের মতো করোনায় রেকর্ড মৃত্যু দেখল যুক্তরাজ্য। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে তাণ্ডব চালিয়েছে করোনা। সেই তাণ্ডবে বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) দেশটিতে সর্বোচ্চ এক হাজার ৮২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। ব্রিটিশ ভূখণ্ডে করোনায় একদিনে এত বিপুল প্রাণহানি এটাই প্রথম।

এর আগে বুধবার (২০ জানুয়ারি) দ্বিতীয় সর্বোচ্চ এক হাজার ৬১০ জনের মৃত্যু হয়েছিল। আর বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) দেশটিতে তৃতীয় সর্বোচ্চ এক হাজার ৫৬৪ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছিল।

দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৩৫ লাখ ৫ হাজার ৭৫৪ জন। এর মধ্যে মারা গেছে ৯৩ হাজার ২৯০ জন। আক্রান্ত ও মৃত্যুর হিসেবে যুক্তরাজ্য বিশ্বে পঞ্চম স্থানে রয়েছে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) সকাল পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন নয় কোটি ৭৩ লাখ ৫ হাজার ৩৫৬ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ২০ লাখ ৮৩ হাজার ২০৩ জনের। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৬ কোটি ৯৮ লাখ ৪৭ হাজার ৫১৫ জন।

করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন দুই কোটি ৪৯ লাখ ৯৮ হাজার ৯৭৫ জন। মৃত্যু হয়েছে চার লাখ ১৫ হাজার ৪৯৪ জনের। আর গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মারা গেছেন চার হাজার ৩৭৪ জন।

আক্রান্তে দ্বিতীয় ও মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত সংক্রমিত হয়েছেন এক কোটি ৬ লাখ ১১ হাজার ৭১৯ জন এবং মারা গেছেন এক লাখ ৫২ হাজার ৯০৬ জন। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৫২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

আক্রান্তে তৃতীয় এবং মৃত্যুতে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত করোনায় ৮৬ লাখ ৩৯ হাজার ৮৬৮ জন সংক্রমিত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে দুই লাখ ১২ হাজার ৮৯৩ জনের। ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুর সংখ্যা কিছুটা বেড়ে এক হাজার ৩৮২ জনে দাঁড়িয়েছে।

আক্রান্তের দিক থেকে রাশিয়া চতুর্থ স্থানে রয়েছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩৬ লাখ ৩৩ হাজার ৯৫২ জন। ভাইরাসটিতে মারা গেছে ৬৭ হাজার ২২০ জন। আর ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৫৯৭ জন মানুষের।

এদিকে আক্রান্তের তালিকায় ফ্রান্স ষষ্ঠ, তুরস্ক সপ্তম, ইতালি অষ্টম, স্পেন নবম এবং জার্মানি দশম স্থানে আছে। এ ছাড়া বাংলাদেশের অবস্থান ২৭তম।

গত বছরের ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হয়। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৮টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯।

 

  • 24
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে