যুক্তরাষ্ট্রে ট্রাম্প সমর্থকদের সশস্ত্র মহড়া

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৮, ২০২১; সময়: ৮:২৩ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটল ভবনে হামলার মতো জো বাইডেনের অভিষেক ঘিরে রাজ্য পরিষদগুলোতেও ট্রাম্প সমর্থক চরমপন্থীরা হামলা চালানোর চেষ্টা করতে পারে বলে আগেই সতর্ক করে দিয়েছিল ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (এফবিআই)। এরপর দেশজুড়ে নেওয়া হয়েছে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা। তবে তার মধ্যেও অনেক রাষ্ট্রীয় ভবন, রাজধানী শহরে এবং গণমাধ্যমের কার্যালয়ের আশেপাশে বিক্ষিপ্ত আকারে সশস্ত্র বিক্ষোভ হয়েছে।

মার্কিন গণমাধ্যম ন্যাশনাল পাবলিক রেডিও’র (এনপিআর) এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ওয়াশিংটন ডি.সি’র রাস্তাগুলো শান্ত ছিল, যেখানে পুলিশ, সামরিক বাহিনী এবং নিরাপত্তা সংস্থাগুলো বুধবার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত জো বাইডেনের অভিষেক অনুষ্ঠানে কোনো ব্যাঘাত সৃষ্টি হতে দিতে চায় না।

ডিসিস্ট সাইট জানিয়েছে, চেকপয়েন্টগুলোতে আলাদা আলাদা ঘটনায় অন্তত তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। হাজার হাজার ন্যাশনাল গার্ড সদস্য ক্যাপটল এবং ন্যাশনাল মলের নিরাপত্তা ব্যবস্থা মজবুত করছে। ডেনভারে, কলোরাডো ক্যাপটলের নিচের জানালা সম্ভাব্য সহিংসতার আশঙ্কায় ঘিরে রাখা ছিল- কিন্তু রবিবারে সেখানে কেউ হাজির হয়নি।

‘আমি সত্যিই বিস্মিত। আমি ভেবেছিলাম এর চেয়ে বেশী কিছু হবে’ প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের একজন সমর্থক কলোরাডো পাবলিক রেডিওকে বলেন।

গত মে মাসে ল্যান্সিং-এ, যেখানে বিক্ষোভকারীরা মিশিগানের ক্যাপিটল ভবনে জড়ো হয়, সেখানে রবিবারের বিক্ষোভকে মিশিগান রেডিও ‘আকর্ষণীয়, কিন্তু ক্ষুদ্র এবং নিস্তেজ’ বলে অভিহিত করে। কিছু বিক্ষোভকারী তাদের সাথে বন্দুক আনা সত্ত্বেও সহিংসতার কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

জর্জিয়ায় আটলান্টার স্টেট হাউসের মাঠে মার্টিন লুথার কিং জুনিয়রের ভাস্কর্যের পাশে একটি সামরিক হামভি পার্ক করা ছিল। জর্জিয়া পাবলিক ব্রডকাস্টিং জানিয়েছে, শহরের কেন্দ্রস্থলের কিছু রাস্তা আবর্জনার ট্রাক দ্বারা অবরুদ্ধ করা হয়েছে। তারা শহরের পরিস্থিতিকে ‘উত্তেজনাপূর্ণ শান্ত’ হিসেবে বর্ণনা করেছে।

অরেগন পাবলিক ব্রডকাস্টিং এর তথ্য অনুযায়ী, একদল সশস্ত্র বিক্ষোভকারীর উপস্থিতি সত্ত্বেও অরেগন রাজ্যের রাজধানী ‘আপেক্ষিক শান্ত’ ছিল।

এই দলে চরমপন্থী ‘বুগালুস’ আন্দোলনের সদস্যরাও ছিল, যারা নতুন গৃহযুদ্ধের পক্ষে জনমত তৈরি করার জন্য পরিচিত।

কয়েক ডজন সশস্ত্র বিক্ষোভকারী রবিবার টেক্সাসের রাজধানীতে জড়ো হয়েছে, দলটি বলেছে যে তারা ‘ব্যক্তি স্বাধীনতার বার্তা’ ছড়িয়ে দিতে এসেছে। তবে গ্রাউন্ডটি বন্ধ থাকায় অনেকেই সেখানে আসতে পারেননি।

ফ্লোরিডার তালালাসির ক্যাপিটল প্রধানত আইন প্রয়োগকারী সংস্থা এবং সাংবাদিকদের দ্বারা পরিবেষ্টিত ছিল, সেখানে এক ব্যক্তি সাইকেলে চালাতে থাকা অবস্থায় চিৎকার করে বলে, ‘এটি একটি সুন্দর দিন! এখানে কিছুই হচ্ছে না!’

আশঙ্কা করা বিক্ষোভের তুলনায় ছোট বিক্ষোভ হবার জন্য বেশ কিছু সম্ভাব্য ব্যাখ্যা রয়েছে- যার মধ্যে রয়েছে কিছু ডানপন্থী একটিভিস্ট যারা এমন এক সময়ে জড়ো হতে অনিচ্ছুক- যখন পুলিশ কোন ঝামেলার চিহ্ন খুঁজছে এবং এফবিআই জোরালোভাবে ওয়াশিংটনে হামলার অভিযোগের কারো কাঁধে তুলে দেবার মতো মানুষ খুঁজছে।

পাঁচজন নিহত হওয়া ওয়াশিংটনের সহিংস বিদ্রোহের ঘটনায় ফেডারেল কর্তৃপক্ষ সারা দেশে ডজনখানেক মানুষকে গ্রেপ্তার করেছে। সপ্তাহান্তে আরো কিছু লোককে আটক করা হয়েছে।

এই হামলার পর থেকে সামাজিক প্রচার মাধ্যম এবং প্রযুক্তি কোম্পানিগুলো ষড়যন্ত্র তাত্ত্বিকদের জন্য এ ধরণের কথা প্রচার আরো কঠিন করে তুলছে যে- ৩ নভেম্বরের নির্বাচনে কারচুপি করা হয়েছে এবং ট্রাম্প নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের কাছে পরাজিত হননি।

গত সপ্তাহে সংগঠক এবং ষড়যন্ত্র তাত্ত্বিকদের জন্য একটি বড় আঘাত আসে, যখন পার্লার’কে টুইটারের একটি রক্ষণশীল বিকল্প হিসেবে দেখা হয়। তখন আমাজন পার্লারের ওয়েব সাইট হোস্ট করা বন্ধ করে দেয়। অ্যাপল এবং গুগল তাদের অ্যাপ অফার থেকে পার্লারকে সরিয়ে দিয়েছে।

ফেসবুক ‘চুরি বন্ধ করুন’ এর মত বার্তা দেওয়া পোস্ট গুলোকে টার্গেট করছে, এবং টুইটার কিউএনন সম্পর্কিত ৭০ হাজারের’ও এর ও বেশী একাউন্ট স্থগিত করেছে।

  • 22
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে