ইভাঙ্কা ফিরবেন কাপড় ব্যবসায়ে

প্রকাশিত: নভেম্বর ১৩, ২০২০; সময়: ১২:০৫ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ব্যবসায়ী থেকে ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হয়ে যাওয়ার পর তার নিজের ও পরিবারের সদস্যদের জীবনে এসেছে বিরাট পরিবর্তন। এর মধ্যে ট্রাম্পের বড় মেয়ে ইভাঙ্কা ও তার স্বামী জ্যারেড কুশনার ছিলেন সবচেয়ে বেশি আলোচনায়। স্বামী-স্ত্রী দু’জনেই প্রেসিডেন্টের জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টার দায়িত্ব পালন করেছেন।

ব্যক্তিগত কাজকর্ম ছেড়ে গত চার বছর কাটিয়েছেন হোয়াইট হাউসে। কিন্তু সময় বসে নেই। দ্বিতীয় মেয়াদে ট্রাম্প জয়ী হতে না পারায় মাত্র ৭২ দিন পর তাদের ছাড়তে হচ্ছে হোয়াইট হাউস। ইভাঙ্কা, কুশনার, ট্রাম্প ও তার পরিবারের অন্য সদস্যরা কী করতে পারেন, দেখে নেয়া যাক। নিউইয়র্ক টাইমস।

ইভাঙ্কা-কুশনারের প্রথম কাজ ট্রাম্পকে হোয়াইট হাউস থেকে বের করা : স্বভাবতই বড় মেয়ের ওপর বাপের বাড়তি নির্ভরতা থাকে। মেয়েরও থাকে বাপের ওপর বিশাল প্রভাব। ক্ষেত্রবিশেষে মেয়েজামাইও প্রভাব বিস্তার করেন শ্বশুরের ওপর।

ট্রাম্পের বড় মেয়ে ইভাঙ্কা ও তার স্বামী জ্যারেড কুশনারই এর সবচেয়ে বড় উদাহরণ। আরব-ইসরাইল সম্পর্ক ও ইসরাইলের মার্কিন দূতাবাস তেলআবিব থেকে জেরুজালেমে নেয়ার মতো ট্রাম্পের বিতর্কিত সিদ্ধান্তগুলোর পেছনে ইভাঙ্কা ও তার ইহুদি স্বামী কুশনারই প্রধান প্রভাবক।

ট্রাম্পের পুনরায় বিজয়ী হতে না পারার পর এখন ইভাঙ্কা-কুশনারের প্রথম কাজ হচ্ছে ট্রাম্পকে বুঝিয়ে পরাজয় স্বীকার করানো এবং সময়মতো হোয়াইট হাউস থেকে তাকে বের করে নিয়ে যাওয়া। তারা যে এ কাজে ইচ্ছুক, সংবাদমাধ্যমের বিভিন্ন খবরে পাওয়া গেছে। কুশনার ও ইভাঙ্কা, এমনকি মেলানিয়া পর্যন্ত ট্রাম্পকে পরাজয় স্বীকার করতে বলেছেন।

টিভি উপস্থাপক হতে পারেন ইভাঙ্কা : টেলিভিশনে রিয়েলিটি উপস্থাপন করা ট্রাম্প পরিবারের জন্য মামুলি বিষয়। ট্রাম্পের নিজের দ্য এপ্রেন্টাইস শো’ উপস্থাপনের মধ্য দিয়ে আলোচনায় আসে ট্রাম্প পরিবার।

হোয়াইট হাউস থেকে বের হয়ে তাই রিয়েলিটি শো’র উপস্থাপক হতে পারেন ইভাঙ্কা। দ্য রিয়াল স্টেফোর্ড ওয়াইভস হতে পারে তেমন একটি শো’। শোনা যাচ্ছে, এরই মধ্যে স্মার্ট সুন্দরী ইভাঙ্কার কাছে টিভিগুলোর প্রস্তাবের ঝড় বইছে।

সস্তার কাপড় বিক্রি করতে পারেন ইভাঙ্কা : জুয়েলারি ও কাপড়সহ ফ্যাশন জগতের ব্যবসার সঙ্গে জড়িত ছিলেন ইভাঙ্কা। ইভাঙ্কা’স ফ্যাশন প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টার দায়িত্ব নেয়ার পর যদিও মুখ থুবড়ে পড়েছে।

এখন আমাজনসহ বিভিন্ন ব্র্যান্ডের দোকানে ইভাঙ্কা ফ্যাশনের পণ্য পাওয়া যাবে। তিনি চীন থেকে উৎপাদিত পণ্য দিয়ে নিজের ফ্যাশন ব্র্যান্ড দাঁড় করিয়েছিলেন। ‘প্যাট্রিয়টস’ এ সেগুলো বিক্রি করা হতো। এখন চাইলে আবারও সে ব্যবসায় নামতে পারেন। এক্ষেত্রে কেলিয়ান কনওয়ে ওয়ানাবিসের সঙ্গে সস্তা কাপড়ের ব্যবসায় ফিরতে পারেন ইভাঙ্কা। অনেকে এখনও তার প্রতি আকৃষ্ট।

গয়ার মুখপাত্র হতে পারেন ইভাঙ্কা : হিসপানিক মালিকানাধীন বৃহৎ খাদ্য সরবরাহকারী কোম্পানি গয়া ফুডের মুখপাত্র হতে পারেন ইভাঙ্কা। প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টার দায়িত্ব পালনকালেও তিনি গয়ার ছবি টুইট করেছেন এবং তাদের প্রচারণা চালানোর অধিকার তার রয়েছে বলে জানিয়েছেন।

কুশনার ফিরবেন রিয়েল এস্টেট ব্যবসায় : জ্যারেড কুশনার বাবার রিয়েল এস্টেট ব্যবসায় ফিরে যেতে পারেন।

তার বাবার কুশনার কোম্পানিজ নামে বড় ধরনের রিয়েল এস্টেট ব্যবসা রয়েছে। বর্তমানে কোম্পানির অবস্থা ভালো যাচ্ছে না। তারা অনেক কর্মী ছাঁটাইয়ের মুখে আছেন। কুশনার আবার দায়িত্ব নিতে পারেন নিজেদের কোম্পানির।

স্টার্টআপেও ফিরতে পারেন জ্যারেড : জ্যারেড কুশনারের রিয়েল এস্টেট স্টার্টআপ বা নিজেদের নতুন ব্যবসা আইডিয়াও আছে। ভাইয়ের সঙ্গে যৌথভাবে তিনি এই কোম্পানি খুলেছেন। এর মালিকানা মূলধন আড়াই থেকে পাঁচ কোটি ডলার হতে পারে।

ননদের সঙ্গে ব্যবসায়ও ফিরতে পারেন ইভাঙ্কা : ইভাঙ্কার ননদ তথা স্বামী কুশনারের বোনের সঙ্গে ইভাঙ্কার একটি ব্যবসা ছিল নিউইয়র্কে। গালা সার্কিক নামের এই প্রতিষ্ঠান নিউইয়র্কে উচ্চবিত্তদের বিভিন্ন সেবা দেয়। ইভাঙ্কা শ্বশুরবাড়ির লোকদের সঙ্গে সে ব্যবসায়ও ফিরতে পারেন।

ইভাঙ্কা হতে পারেন প্রেসিডেন্ট প্রার্থী : ট্রাম্পের বড় মেয়ে ইভাঙ্কা ২০২৪ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থী হতে পারেন। বিতর্কিত চরিত্রের ও উদ্ভট সিদ্ধান্তের পরও তার বাবা এবার সাত কোটির মতো ভোট পেয়েছেন।

এই উৎসাহ স্মার্ট ও আকর্ষণীয় ইভাঙ্কাকে ভোটে নামাতে প্রভাবিত করতে পারে ট্রাম্প পরিবারকে। অবশ্য ক্লিনটন-হিলারি দম্পতির মেয়ে চেলসি সম্পর্কেও এমন ভবিষ্যদ্বাণী ছিল। কিন্তু সেটার বাস্তবায়ন দেখা যায়নি। ইভাঙ্কা সে পথে হাঁটেন কি না, তা দেখার জন্য ২০২৪ সাল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

ট্রাম্প কী করবেন? : ট্রাম্প তার বিখ্যাত পারিবারিক ব্যবসায় ফিরতে পারেন। প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে তার নিজের অনেক অর্থও ব্যয় করতে হয়েছে। পাকা ব্যবসায়ী হিসেবে ব্যবসার ক্ষতিপূরণে মনোযোগ দিতে পারেন তিনি। অবশ্য ব্যবসা-সংক্রান্ত ও ব্যক্তিগত অনেক মামলা আছে প্রেসিডেন্টের। সেগুলো নিয়েও তাকে ব্যস্ত থাকতে হবে।

বিজনেসের ব্র্যান্ড বিক্রি করতে পারেন ট্রাম্প : ট্রাম্প পরিবারের অর্থ আয়ের সবচেয়ে সহজ পথ হচ্ছে তাদের পারিবারিক ব্যবসা ট্রাম্প অর্গানাইজেশনের ব্র্যান্ড নেম বিক্রি করা। বিশ্বজুড়ে হোটেল, গলফকোর্স ও আরও কিছু চেইন বিজনেস আছে ট্রাম্প অর্গানাইজেশনের।

যে কোনো দেশে নিজেদের এই ব্যবসার ব্র্যান্ড নেম বিক্রি করে বিশাল অঙ্ক কামানোর সুযোগ আছে। ট্রাম্প তাতে মনোযোগ দিতে পারেন। এটি পুঁজি ছাড়া আয়ের পথ। এতে প্রাথমিকপর্যায়ে বছরে পাঁচ থেকে ১০ লাখ ডলার কামানোর সুযোগ আছে।

ট্রাম্প বা ছেলের ফের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন : ট্রাম্পের সন্তানদের মধ্যে মেয়ে ইভাঙ্কা ও বড় ছেলে ডোনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়রের রাজনৈতিক উচ্চাকাক্সক্ষা রয়েছে। ফলে ২০২৪ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টি যদি ট্রাম্প পরিবারের সমর্থনের বিষয় মাথায় নিয়ে ট্রাম্প বা ছেলে ট্রাম্প জুনিয়রকে প্রার্থী করে- তবে বিস্মিত হওয়ার কিছু থাকবে না। ইভাঙ্কার কথা আগেই বলা হয়েছে।

টিভিতে ফেরা : টিভি উপস্থাপনার প্রতি ট্রাম্পের ভালোলাগা রয়েছে। তিনি যদি উপস্থাপক হিসেবে কোনো টিভিতে ফিরে আসেন, তাতে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • দ্বিতীয় দেশ হিসেবে ফাইজারের টিকার অনুমোদন দিল বাহরাইন
  • মার্কিনিরা করোনার ভ্যাকসিন নিতে বাধ্য নন: বাইডেন
  • গত একদিনে ২৭শ’ মার্কিনির প্রাণহানি, রেকর্ড শনাক্ত
  • যুক্তরাষ্ট্রে করোনার টিকা নেয়া বাধ্যতামূলক করা হবে না : বাইডেন
  • টিকা গ্রহণ বাধ্যতামূলক হবে না: জো বাইডেন
  • ফরাসিদের উচিত ম্যাক্রোঁকে পরিত্যাগ করা: এরদোয়ান
  • দ্বিতীয় তরঙ্গে ইতালিতে মৃত্যুর নতুন রেকর্ড
  • ব্রাজিলে মৃতের সংখ্যা পৌনে ২ লাখ ছাড়াল
  • ১০০ দিন মাস্ক পড়ে থাকুন: বাইডেন
  • করোনা পরিস্থিতি বদলাতে বাইডেন চান ১০০ দিন
  • করোনায় মৃত্যু ১৫ লাখ ছাড়ালো, শনাক্ত সাড়ে ৬ কোটির বেশি
  • ভারতে আঘাত হানছে ঘূর্ণিঝড় বুরেভি
  • জাতিসংঘে উত্থাপিত ‘শান্তির সংস্কৃতি’ রেজুলেশন গৃহীত
  • ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা ৯৫ লাখ ছাড়াল
  • রাশিয়ায় গণহারে করোনার টিকা প্রদান শুরু
  • উপরে