মৃতঘোষিত সুদানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী গোপন কারাগারে

প্রকাশিত: মে ৫, ২০১৯; সময়: ১২:৪১ অপরাহ্ণ |
Share This

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : সুদানের সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইব্রাহিম চামসাদিনকে একটি নির্জন কক্ষে সম্প্রতি খুঁজে পাওয়া গেছে বলে দাবি করেছেন সেদেশের একজন রাজনীতিবিদ। যদিও এর আগে সুদান সরকার জানিয়েছে যে, কর্নেল ইব্রাহিম বিমান দুর্ঘটনায় ২০০৮ সালের ১১ জুন মারা গেছেন।

একজন কঙ্কালসার বৃদ্ধ একটি নির্জন কক্ষে করুণ দৃষ্টিতে চেয়ে আছেন। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এমন একটি ছবি ছড়িয়ে পরে। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, শুভ্র চুলের এই লোকটির সারা গায়ে ধুলা। তিনি যেখানে বসে আছেন সেই জায়গাটিও ধুলাবালিতে একাকার। তার পরনে একটি জীর্ণশীর্ণ লুঙ্গি। অসহায় দৃষ্টিতে তিনি তাকিয়ে আছেন ক্যামেরার দিকে।

ঐ রাজনীতিবিদের দাবি ছবির এই লোকই সুদানের সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইব্রাহিম চামসাদিন, যাকে স্বৈরশাসনের প্রতিবাদ করায় প্রায় ২৪ বছর আগে জেলে পাঠানো হয়েছিলো।

অন্ধাকারে আলো ফেলে তার ছবি তোলা হয়েছে। সাবেক এই মন্ত্রীকে আটকে রাখা স্থানটি একটি গুহা। সেই সাথে ইব্রাহিম ছামসাদিনের ঘুমন্ত অবস্থার ছবিও প্রকাশ পেয়েছে। সেখানে দেখা যায়, এক টুকরো কাঠের উপর মাথা রেখে বালির উপর শুয়ে আছেন তিনি!

জানা যায়, সুদানের স্বৈরশাসক ওমর আল-বশির তার অবৈধ শাসনের প্রতিবাদ করায় ১৯৯৫ সালে দেশটির তৎকালীন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী ইব্রাহিম ছামসাদিনকে জেলে পাঠান। শুধু তাই নয়, ২০০৮ সালে সুদান সরকার রাষ্ট্রীয়ভাবে ঘোষণা করে যে, সাবেক প্রতিরক্ষা মন্ত্রী ইব্রাহিম ছামসাদিন বিমান দুর্ঘটনায় মারা গেছেন। ইব্রাহিম ছামসাদিনের বর্তমান অবস্থার সাথে সাথে তার মন্ত্রী থাকাকালীন একটি ছবিও প্রকাশ করে আফ্রিকান গণমাধ্যমগুলো।

তবে ঘটনা আসলে কোনটা সত্য। সাবেক এই প্রতিরক্ষামন্ত্রী কি সত্যিই মারা গেছেন? নাকি সম্প্রতি তাকে নির্জন একটি কক্ষে বন্দী অবস্থায় খুঁজে পাওয়া গেছে। মূলত ফেমি ফেনি-ক্যাইওড নামে একজন নাইজেরীয় রাজনীতিবিদের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে একটি পোস্টকে কেন্দ্র করে এই বিতর্কের সূত্রপাত।

উপরে