কৈশোরকালীন যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতে সমন্বিতভাবে কাজ করার আহ্বান

প্রকাশিত: জানুয়ারি ৮, ২০২২; সময়: ৬:১৮ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : কিশোর-কিশোরী ও তরুণদের যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতে এক অ্যাডভোকেসি সভার আয়োজন করা হয়। গাজীপুর জেলার টঙ্গী, সদর, কাপাসিয়া, কালিয়াকৈড়, কালিগঞ্জ উপজেলা এবং সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচিত ৫ টি ওয়ার্ডে এই কার্যক্রম পরিচালনার লক্ষ্যে স্থানীয় স্টেকহোল্ডারদের অবহিত করার লক্ষ্যেই অ্যাডভোকেসি সভার আয়োজন করা হয়। গত (৫ জানুয়ারি ২০২২) সকাল ১১টায় গাজীপুর জেলা পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মিলনায়তনে দাতা সংস্থা ইউএসএআইডিএর অর্থায়নে পাথফাইন্ডার সুখী জীবন প্রকল্পের কারিগরি সহযোগিতায় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা লাইট হাউসের আয়োজনে করে।

গাজীপুর জেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের উপপরিচালক লাজু শামসাদ হক’র সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে প্রধান অতিথি হিসেবে অনলাইনে যুক্ত ছিলেন পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের পরিচালক (এমসিএইচ সার্ভিসেস ও লাইন ডিরেক্টর) ডা. মো. মাহমুদুর রহমান।

লাইট হাউস নির্বাহী প্রধান মো. হারুন অর রশিদের সঞ্চালনার পাশাপাশি সুখী জীবন কর্মসূচীর লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য তুলে ধরেন। এসময় প্রধান অতিথি পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের পরিচালক (এমসিএইচ সার্ভিসেস ও লাইন ডিরেক্টর) ডা. মো. মাহমুদুর রহমান অনলাইনে যুক্ত হয়ে বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, কৈশোর ও যুববান্ধব স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিতে সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তবে এই বৃহৎ কর্মযজ্ঞ একটি দপ্তরের একার পক্ষে সফলভাবে করা অনেক সময় দুরহ হয়ে পড়ে। তাই সকলের সম্মিলিত অংশগ্রহণ ও সমন্বিত উদ্যোগ সরকারের কার্যক্রমকে সফল করে তুলতে ভূমিকা রাখবে। বেসরকারী সংগঠনসহ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে এই ক্ষেত্রে কার্যকর ভূমিকা রাখার আহবান জানান।

অনুষ্ঠানের প্রশ্নোত্তর পর্বে উপস্থিত অংগ্রহণকারীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন আয়োজক প্রতিষ্ঠানসহ অতিথিবৃন্দ। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন গাজীপুর জেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক ফৌজিয়া আসমত, ডা. মো. মজনু মিঞা, জেলা তথ্য কর্মকর্তা জালাল উদ্দিন, জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা রেবেকা সুলতানা, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ রহমতউল্লাহ্ প্রমূখ।

বক্তারা বলেন সরকারের মানবসম্পদ বিভাগ বিশেষ করে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর, জনশক্তি কার্যালয়, শিক্ষা সংশ্লিষ্ট অফিস সমূহের সমন্বয়ে কার্যকর উদ্যোগ নেয়ার আহবান জানান। পাশাপাশি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অনলাইন প্রশিক্ষণের উপর জোর দেয়ার তাগিদ দেন। অনুষ্ঠানে ধন্যবাদজ্ঞপন করেন কর্মসূচির অ্যাডভোকেসি ও কমিউনিক্যাশন কর্মকতা ডা. রাহনুমা তামান্না।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে