বাগমারার পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

প্রকাশিত: আগস্ট ২৯, ২০২১; সময়: ১১:২২ am |

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বাগমারা : রাজশাহীর বাগমারায় পরিবার পকিল্পনা কর্মকর্তা ডা: ফারাদিবার বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম ও ক্ষমতার অপব্যবহারসহ কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকার অভিযোগ উঠেছে। ওই ঘটনায় বাগমারায় কর্মরত পরিবার পরিকল্পনার কর্মচারীরা ব্যবস্থা নেয়ার জন্য উপ-পরিচালক রাজশাহী বরাবর লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।

এছাড়াও বাগমারা এলাকার সেবা গ্রহিতারাও তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবী জানিয়েছেন। তবে ডা: ফারাদিবা অফিস করবেন কিনা সেটা তার ব্যাপারে বলে গনমাধ্যম কর্মীকে জানিয়েছেন। তার কোন দরকার থাকলে তাকে বলতে হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

অপরদিকে, অভিযুক্ত চিকিৎসকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন, পরিবার পরিকল্পনা রাজশাহী এলাকার ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক নাসিম আক্তার।

এলাকাবাসী জানান, পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: ফারাদিবা বাগমারায় যোগদান করার পর থেকেই তিনি অফিস ফাঁকি দিয়ে রাজশাহী শহরে বসে থাকেন। রাজশাহী শহরে বসবাস করার কারনেই তিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আসেন না।

এছাড়াও তদারকি করার লোকজন না থাকায় তিনি বেশী সুযোগ পেয়েছেন বলে হাসপাতালে সেসবা নিনতে আসা রোগীর অভিভাবকেরা জানিয়েছেন। সেবা নিতে আসা উপজেলার বিভিন্ন এলাকার মানুষ গুলো ব্যাপক হয়রানীর শিকার হয়। তিনি অফিসের কর্মচারীদের সাথেও ভাল ব্যবহার করেন না। তার আচরনে অফিসের সকল কর্মচারী ভয়ে বয়ে থাকেন বলে জানা গেছে।

রাজশাহী শহরে বসে বসে অফিস করেন তিনি। সপ্তাহে একদিন অফিসে এসে হাজিরাসহ সকল কাগজপত্র সহি করে আবারো চলে যান।

এলাকার লোকজন অভিযোগ করেন, তিনি সপ্তাহে মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১০ থেকে ১১ টার মধ্যে অফিসে পৌঁছে তার রুমের দরজা বন্ধ করে তিনি বসে থাকেন। বেলা ১ টা বাজার সাথে সাথে তিনি তার কর্মস্থল ত্যাগ করে আবারো রাজশাহী শহরে চলে যান। যার কারনে এলাকার গর্ভবতিসহ হাসপাতালের পরিবার পরিকল্পনা বিভাগে বিভিন্ন রোগীরা তাদের সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

নাম জানাতে অনিচ্ছুক হাসপাতালের এক কর্মচারী জানান, তিনি সপ্ততাহের মঙ্গলবারে আসবেন এবং দরজা বন্ধ রেখে মুঠোফোনে ফেসবুক নিয়ে ব্যস্ত থাকেন। সেবা নিতে অনেকেই চিকিৎসক নেই বলে ফিরে যান।

এছাড়াও তাকে সহযোগীতা করা ওই অফিসের পিয়নসহ অন্যান্য কর্মচারীদের সাথে খারাপ আচরন করেন। সেবা থেকে রোগীদের বঞ্চিত করে তিনি সরকারী অর্থ তসরুপ করছেন বলে এলাকার সচেতন মানুষ মনে করেন। তার আচরনে অতিষ্ট হয়ে উপজেলার পরিবার পরিকল্পনা অফিসের ৪৫ জন কর্মচারীর মধ্যে ৩৫ জন স্বাক্ষরিত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য একটি অভিযোগপত্র উপ-পরিচালক রাজশাহী বরাবর প্রেরন করেছেন।

ডা: ফারাদিবার এমন কর্মকান্ডে বাগমারায় গর্ভবতি মায়েদের সেবা ভেঙ্গে পড়েছে। অবিলম্বে ওই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিলে গর্ভবতি নারীদের সন্তান সম্ভবনার সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে বলে অনেকেই মনে করছেন।

এ ব্যাপারে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে অভিযুক্ত চিকিৎসক ফারাদিবা জানান, আপনার কোন প্রয়োজন থাকলে জানান। আমি অফিস করি না করি সেটা আমার ব্যাপার। আপনার কি প্রয়োজন তাই বলুন।

অপরদিকে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে পরিবার পরিকল্পনা রাজশাহী অঞ্চলের ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক ডা: নাসিম আক্তার বলেন, ওই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ হয়েছে। এছাড়াও সে গুলো তদন্ত চলছে। অল্প সময়ের মধ্যেই তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে তিনি এই সংবাদ কর্মীকে জানান।

  • 37
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • করোনায় মৃত্যু কমলেও বাড়ল শনাক্ত
  • ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে ফের টিকা ক্যাম্পেইন
  • ২৪ ঘন্টায় দেশে বাড়ল করোনায় মৃত্যু
  • সকালে খালিপেটে খেজুর খেলে যে উপকার পাবেন
  • অ্যালঝেইমারস আক্রান্তের শীর্ষে রাজশাহী
  • দেশে ফের বাড়ল করোনার মৃত্যু
  • দেশে করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত আরও কমল
  • দেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত সাড়ে ১৫ হাজার, মৃত্যু ৫৯
  • শনাক্তের হার কমে ৬ শতাংশের নিচে, মৃত্যু আরও ৫১
  • দেশে করোনায় মৃত্যু বাড়ল
  • ৫-১১ বছর বয়সীদের জন্যে ফাইজারের টিকা, অনুমোদন পেতে পারে অক্টোবরে
  • বিশেষ বিসিএসে ৪ হাজার চিকিৎসক নিয়োগের সুপারিশ
  • অবশেষে চাকা ঘুরল রামেকের সেই অ্যাম্বুলেন্সটির
  • স্থূলতার সমস্যা বাড়ছে ১৮ থেকে ২৪ বছর বয়সে, বলছে সমীক্ষা
  • যে কারণে রাতে ফল খাওয়া ভালো না
  • উপরে