ঢাকায় আক্রান্তের ৬৮ শতাংশে ভারতীয় ধরন

প্রকাশিত: জুন ১৭, ২০২১; সময়: ১১:৪৫ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ঢাকা শহরে সম্প্রতি করোনায় আক্রান্তদের বড় একটি অংশের নমুনা পরীক্ষা করে অতিসংক্রামক ভারতীয় ডেল্টা ভ্যরিয়েন্টের উপস্থিতি শনাক্ত করেছে আইসিডিডিআর, বি। আইসিডিডিআর, বির গবেষকরা গত ২৫ মে থেকে ৭ জুনের মধ্যে ঢাকার ৬০ জন কোভিড-১৯ রোগীর নমুনা সংগ্রহ করে জিনোম সিকোয়েন্স করেছে।

এদের মধ্যে অন্তত ৪১ জন ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট দিয়ে সংক্রমিত ছিলেন বলে গবেষণায় পাওয়া গেছে। নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া যায় ৬৮ শতাংশ ক্ষেত্রে। আইসিডিডিআর, বির জনসংযোগ বিভাগের কর্মকর্তারা এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ডেল্টার ভ্যারিয়েন্টের বাইরে ২২ জনের নমুনায় সাউথ আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট, দুই জনের নাইজেরিয়ান ভ্যারিয়েন্ট, একজনের উহান ভ্যারিয়েন্ট ও একজনের নমুনায় অজানা একটি ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়।

বাংলাদেশে ভারতের দ্রুত সংক্রামক ভ্যারিয়েন্টের প্রবেশ ঠেকাতে সরকার ২৬ এপ্রিল দেশটির সঙ্গে সীমান্ত বন্ধ করে দেয়। এরপরও সীমান্তবর্তী জেলাগুলোতে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হওয়ার কথা জানা যায়। এরকম বেশ কয়েকটি জেলায় শনাক্তের হার সম্প্রতি ৫০ শতাংশও ছাড়িয়েছে।

করোনাভাইরাসের বি১.৬১৭.২ ভ্যারিয়েন্টটি প্রথমে ভারতে শনাক্ত হয়। এই ভ্যারিয়েন্টের কারণেই দেশটিতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে হু হু করে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে গিয়েছিল। বিশ্বব্যাপী গণস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের কপালে চিন্তার ভাজ ফেলেছে ডেল্টা নাম পাওয়া এই ভ্যারিয়েন্ট।

এর আগে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) এর জিনোম সিকোয়েন্সেও ভারতীয় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছিল। ৫০টি নমুনার মধ্যে ৪০টিতেই তখন ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া যায়।

তবে এর মধ্যে মাত্র দুটি নমুনা ছিল ঢাকার। বাকি নমুনাগুলো ছিল দিনাজপুর, গাইবান্ধা, বাগেরহাট, ঝিনাইদহ, পিরোজপুর, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, গোপালগঞ্জ ও খুলনা জেলার। ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের সামাজিক সংক্রমণ শুরু হওয়ার কথা জানানো হয়েছিল তখনই।

বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা, ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়ায় ঢাকা শহরের করোনা পরিস্থিতি খুলনা ও রাজশাহী বিভাগের মতো হয়ে যেতে পারে। গত ৮ মে দেশে প্রথম ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছিল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে