চাঁপাইনবাবগঞ্জে স্থানীয়ভাবে ছড়াচ্ছে করোনার ভারতীয় ধরন

প্রকাশিত: মে ২৯, ২০২১; সময়: ১২:৪০ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৭ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের ভারতে উদ্ভূত ধরনটি পাওয়া গেছে, যারা কখনও প্রতিবেশী ওই দেশটিতে যাননি। এর মানে হল, বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের অতি সংক্রামক এই ধরনটির কমিউনিটি সংক্রমণ ঘটছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, শুক্রবার নতুন আরও ১৩ জনের শরীরে ভারতে উদ্ভূত ধরনটির সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এ পর্যন্ত দেশে সব মিলিয়ে ৩৩ জনের শরীরে ওই ধরনটি পাওয়া গেল।

অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা.এবিএম খুরশীদ আলম শুক্রবার রাতে সাংবাদিকদের জানান, নতুন যে ১৩ জনের দেহে করোনাভাইরাসের ওই ধরনটি শনাক্ত হয়েছে, তাদের মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৭ জন। তাদের কারও ভারত ভ্রমণের ইতিহাস নেই। তারা স্থানীয়ভাবে সংক্রমিত হয়েছেন। বাকী ৬ জনের ভারত ভ্রমণের ইতিহাস আছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জে শনাক্ত সাতজনের পাঁচজনই পুরুষ। পুরুষ পাঁচজনের মধ্যে সবচেয়ে কনিষ্ঠজনের বয়স ১৩ বছর। একজনের বয়স ৩০ বছর, আরেক জনের বয়স ২১ বছর। বাকি দুজন হলো ৫২ বছর বয়সী এবং ২৭ বছর বয়সী। বাকি দুজন নারী। নারী দুজনের বয়স একজনের ২৭ বছর, আরেকজনের ৩১ বছর। এই সাতজনের কেউই অবশ্য সম্প্রতি ভারত ভ্রমণ করেননি।

করোনাভাইরাসের এ ধরনটির আনুষ্ঠানিক নাম দেওয়া হয়েছে বি.১.৬১৭। মিউটেশনের কারণে এর তিনটি ‘সাব টাইপ পাওয়া গেছে। এর মধ্যে বাংলাদেশে পাওয়া গেছে বি.১.৬১৭.২ ধরনটি। ইতোমধ্যে অন্তত চার ডজন দেশে করোনাভাইরাসের বি.১.৬১৭ ধরনটি ছড়িয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এ ধরনটিকে চিহ্নিত করেছে ‘ভ্যারিয়েন্ট অব কনসার্ন’ (ভিওসি) হিসেবে।

দেশের সীমান্তবর্তী জেলা চাঁপাইনবাবগঞ্জে করোনাভাইরাস সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় গত সোমবার সাত দিনের ‘লকডাউন’ ঘোষণা করেছে প্রশাসন।

  • 1.1K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে