মিথিলাকে সঙ্গে নিয়ে নস্টালজিয়ায় ভাসলেন সৃজিত

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৪, ২০২১; সময়: ৯:৫০ am |
খবর > বিনোদন

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : শুটিংয়ের ব্যস্ততায় পরিবারকে সময় দেওয়া অনেকটা অসম্ভব বিষয়। এই ব্যালেন্স সবাই করতেও পারেন না।

অনেক সময় এটি আবার পরিবারের সঙ্গে এক রকম দূরত্বও তৈরি করে। তাই কর্মজীবনের সঙ্গে ব্যক্তিগত জীবনের দূরত্ব মেটাতে শুক্রবার রাতে প্রিয়জনদের সঙ্গে ভালো সময় কাটালেন সৃজিত। মনে করলেন বাবা-মাকেও।

ভারতীয় এই পরিচালক এ সময় ছুঁয়ে দেখলেন ফেলে আসা সময়কে। আর তার এই স্মৃতিরোমন্থনের সাক্ষী থাকলেন স্ত্রী ও অভিনেত্রী-গায়িকা রাফিয়াত রশিদ মিথিলা।

সেদিনের দুটি ছবি পোস্ট করেছেন সৃজিত। একটিতে তারা চারজন সরু গলির মধ্যে সেলফি তুলেছেন। অন্যটি সাদাসাটা রেস্তরাঁয়। ক্যাপশনে মনে করলেন বাবা-মাকে।

সৃজিত লিখেছেন, ৩৫ বছর আগে, প্রফেসর মুখার্জি ও ড. সরকার এখানে আসতেন তার কন্যা ও পুত্রকে নিয়ে।তারা রাতের শো দেখতে যেতেন ইন্দিরা, পূর্ণ, বাজলি কিংবা ভারতীতে।

একটা বৃত্ত সম্পূর্ণ হলো। পরের প্রজন্ম সময় কাটাল সাঙ্গুভ্যালি ও ৫এ ইন্দ্রা রায় রোড। এখান থেকেই সবকিছুর সূত্রপাত।সম্প্রতি ‘সাবাস মিতু’ শেষ করে ‘শেরদিল’-এর শুটিং করছেন সৃজিত। শুটিং করছেন উত্তরবঙ্গে। ছবিটি বাঘ ও প্রকৃতিকে নিয়ে।

এই ছবির বড় চমক, সেখানে অভিনয় করছেন তুখোড় অভিনেতা পঙ্কজ ত্রিপাঠী। আর রয়েছেন নীরজ কবি, সায়নী গুপ্তার মতো তারকারাও।

সৃজিতের ‘শেরদিল’-এর ভাবনা আজকের নয়। ২০১৯ সালে ঘোষণা করেছিলেন ‘শেরদিল’ তৈরি করবেন। নানাবিধ কারণে শুটিং শুরু হতে অনেকটাই দেরি হয়েছে। এদিকে বাঘ ও প্রকৃতি নিয়ে কয়েক মাস আগেই মুক্তি পায় বিদ্যা বালান অভিনীত ‘শেরনি’।

তবে এই দুটি ছবি একেবারেই আলাদা, জানিয়েছেন সৃজিত নিজে। তিনি বলেছেন, প্রথমে ঘাবড়ে গিয়েছিলাম। কিন্তু যখন ‘শেরনি’ ছবিটা দেখলাম, বুঝলাম আমার ‘শেরদিল’-এর চেয়ে একেবারে আলাদা একটা গল্প।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে