পরীমনির করা ‘ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার’ অভিযোগে মামলা হচ্ছে

প্রকাশিত: জুন ১৪, ২০২১; সময়: ১২:২৩ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়িকা পরীমনি ‘ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার’ যে অভিযোগ করেছেন সে ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

যে জায়গায় পরীমনি নির্যাতনের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ করছেন সেই ঢাকা বোটক্লাব রূপনগর থানার মধ্যে পড়েছে।

রোববার মধ্যরাতে তার বাসায় আসেন রূপনগর থানার ওসি আরিফুর রহমান সরদারের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল। সেখানে তারা পরীমনির কাছে ঘটনার বিবরণ রেকর্ড করেন।

রূপনগর থানার ওসি আরিফুর রহমান বিবিসি বাংলাকে জানিয়েছেন, ‘আমরা অভিযোগ পেয়েছি, রাতে লম্বা সময় তার অভিযোগ লেখা হয়েছে। তবে ঘটনাস্থল আমাদের এলাকায় পড়লে ধর্ষণ ও ভয়ভীতি প্রদর্শনের মামলা আমরা নেব। যদি সাভারের মধ্যে পড়ে তাহলে তারা নেবে।

এখন ঘটনাস্থল ঠিক কোন থানার মধ্যে পড়েছে সেটি যাচাই করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

ওসি আরও বলেন, তাদের কাছে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ করেননি অভিনেত্রী।

গতকাল পরীমনি তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে ‘ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার’ অভিযোগ তুললে সারাদেশে আলোড়ন সৃষ্টি হয়।

প্রতিকার চেয়ে তিনি বনানী থানায় গিয়ে কোনো সাড়া পাননি বলে অভিযোগ করেন। ফেসবুক পোস্টে বিচার চেয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহায্য কামনা করেন।

এরপর গতরাতে তিনি তার বনানীর বাসায় এক সংবাদ সম্মেলন করে ঘটনার বিস্তারিত তুলে ধরেন।

তার অভিযোগ, গত বুধবার রাতে কস্টিউম ডিজাইনার জিমি ও জিমির বন্ধু আমিরসহ তারা উত্তরায় বোট ক্লাবে গিয়েছিলেন। ক্লাবটা তখন বন্ধ হয় হয়।

দুজন বয়স্ক ব্যক্তি এসে তাদের মদপানের আমন্ত্রণ জানায়, যাদের একজন নাসির মাহমুদ বলে পরীমনির ভাষ্য। তবে শরীর খারাপ বলে তা প্রত্যাখ্যান করেছিলেন পরীমনি।

তিনি বলেন, জোরাজুরির এক পর্যায়ে তাকে মারধর করে কিছু লোক। এক পর্যায়ে নাসির মাহমুদ তার মুখে মদের বোতল ঠেসে ধরে গিলতে বাধ্য করেন। তখন তাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালান।

বিষয়টি চেপে যাওয়ার জন্য ওই ব্যবসায়ী তাকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করেছেন বলে অভিযোগ করেন পরীমনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে