সুন্দরী প্রতিযোগিতার মঞ্চে বিশৃঙ্খলা

প্রকাশিত: এপ্রিল ৬, ২০২১; সময়: ১১:১০ pm |
খবর > বিনোদন

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : শ্রীলঙ্কার সবচেয়ে বড় সুন্দরী প্রতিযোগিতার পুরস্কার মঞ্চে বিশৃঙ্খলায় মাথায় চোট পেয়েছেন বিউটি কুইন পুষ্পিকা ডি সিলভা। এ বছর ‘মিসেস শ্রীলঙ্কা’ খেতাব অর্জনের পর মঞ্চে বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে পড়েন তিনি।

বিবিসি জানায়, গত রোববার রাতে কলম্বোর একটি থিয়েটারে ‘মিসেস শ্রীলঙ্কা’র ফাইনালে অনুষ্ঠানে পুষ্পিকা ডি সিলভাকে ২০২১ সালের বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। ঘোষণার কয়েক মুহূর্ত পরে ২০১৯ সালের বিজয়ী ক্যারোলিন জুরি তার মুকুটটি ছিনিয়ে নেন। ক্যারোলিন দাবি করেন, ডি সিলভা আসলে ডিভোর্সপ্রাপ্ত। তিনি এই খেতাবের যোগ্য নন।

শ্রীলঙ্কার জাতীয় টিভিতে সম্প্রচারিত অনুষ্ঠানটিতে সেদিন মিসেস ওয়ার্ল্ড ক্যারোলিন জুরি বলেন, ‘ইতোমধ্যেই বিয়ে হয়েছে এবং বিচ্ছেদ হয়েছে এমন নারীরা নিয়ম অনুযায়ী এ খেতাব পেতে পারেন না। তাই আমি দ্বিতীয় স্থান অধিকারীকে মুকুটটি দিয়ে দিচ্ছি।’

এ কথা বলেই ডি সিলভার মাথা থেকে সোনালি মুকুট তুলে নিয়ে রানার-আপের মাথায় পরিয়ে দেন তিনি। এ সময় অশ্রুসিক্ত চোখে মঞ্চ ছাড়েন ডি সিলভা। মঞ্চের বিশৃঙ্খলায় মাথায় চোট লাগে তার।

এ ঘটনার পর আয়োজকরা নিশ্চিত হন যে, ডি সিলভার ডিভোর্স হয়নি। তিনি আলাদা হয়ে গেছেন, কিন্তু ডিভোর্স হয়নি। আয়োজকরা তার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। তাকে এক দিনের মধ্যেই বিজয়ীর খেতাব ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে। এক ফেসবুক পোস্টে ডি সিলভা বলেন, এই ঘটনায় তিনি মাথায় আঘাত পেয়েছেন। চিকিত্সার জন্য তাকে হাসপাতালে যেতে হয়েছে।

মিসেস ডি সিলভা আরও জানান, তার সঙ্গে হওয়া ‘অযৌক্তিক ও অপমানজনক’ আচরণের জন্য তিনি আইনি ব্যবস্থা নেবেন। ‘মিসেস শ্রীলঙ্কা বিশ্ব সুন্দরী প্রতিযোগিতা’ দেশটির সুন্দরী প্রতিযোগিতার মধ্যে অন্যতম। প্রতিযোগিতার ফাইনাল অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

  • 31
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে