বাংলাদেশকে ১৭শ কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে এআইআইবি

প্রকাশিত: মে ১, ২০২২; সময়: ২:৫৯ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলের অবকাঠামো উন্নয়নের অংশ হিসেবে বাংলাদেশের বেসরকারি খাতে ২০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে এশীয় অবকাঠামো বিনিয়োগ ব্যাংক (এআইআইবি)। প্রতি ডলার সমান ৮৫ টাকা ধরে বাংলাদেশি মুদ্রায় এ ঋণের পরিমাণ ১ হাজার ৭০০ কোটি টাকা।

রোববার (১ মে) অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ (ইআরডি) থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, ‘ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড (ইডকল) মাল্টি সেক্টর অন লেন্ডিং ফ্যাসিলিটি’ নামক প্রজেক্টে এই ঋণ দিচ্ছে সংস্থাটি। প্রকল্পের আওতায় বাংলাদেশ সরকার ও এআইআইবি ঋণ চুক্তি সই করেছে।

বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের অতিরিক্ত সচিব শাহরিয়ার কাদের ছিদ্দিকি এবং সংস্থাটির পক্ষে এআইআইবির মহাপরিচালক (ইনভেস্টমেন্ট অপারেশন) ডং এলকে লি চুক্তিতে সই করেন। এসময় ইআরডি সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এ প্রকল্পের মূল উদ্দশ্যে হলো বাংলাদেশের বেসরকারি খাতে দীর্ঘমেয়াদি অর্থায়নের মাধ্যমে অবকাঠামো খাতে বিনিয়োগ সম্প্রসারণ করা। বাংলাদেশ পারস্পেক্টিভ প্ল্যান ২০২১-২০৪১ এ উল্লিখিত অবকাঠামোগত ঘাটতি পূরণ এবং টেকসই প্রবৃদ্ধি অর্জনের লক্ষ্যের সঙ্গে এ উদ্দেশ্যের সামঞ্জস্য রয়েছে।

এ প্রকল্প বাস্তবায়নে এআইআইবি থেকে নেওয়া ঋণ বাংলাদেশ সরকার পুনরায় ইডকল-কে ঋণ হিসেবে দেবে। ইডকল এ ঋণের অর্থ বেসরকারি খাতের অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নের জন্য ঋণ হিসেবে দেবে। এর অর্থ হচ্ছে এআইআইবি থেকে ঋণ নেবে সরকার। এরপর এটি ঋণ হিসেবে ইডকল-কে দেবে সরকার।

ইডকল পুনরায় বেসরকারি খাতকে ঋণ হিসেবে দেবে। এ প্রকল্প ইডকল এর জন্য অতিরিক্তি অর্থের সংস্থান করবে। যা দেশের অবকাঠামো খাতে দীর্ঘমেয়াদি অর্থায়ানে যে চাহিদা রয়েছে তা পূরণে সহায়ক হবে।

এই প্রকল্পের জন্য নেওয়া ঋণ পাঁচ বছরের গ্রেস পিরিয়িডসহ ১৮ বছরে পরিশোধ করতে হবে। এ ঋণের জন্য ফ্রন্ট অ্যান্ড ফি হিসেবে ০ দশমিক ২৫ শতাংশ এবং কমিটমেন্ট ফি হিসেবে অব্যয়িত অর্থের ওপর বাৎসরকি ০ দশমিক ২৫ শতাংশ পরিশোধ করতে হবে। এ ঋণের সুদ হার নির্ধারিত ০ দশমিক ৬০ শতাংশ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে